পাকিস্তানের সদ্য অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন যুক্তরাষ্ট্রর

748
gb

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক //

পাকিস্তানের সদ্য অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশন নির্বাচন নিয়ে যে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে তার সঙ্গে ওয়াশিংটন একমত বলে জানানো হয়েছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে ভোটপূর্ব নির্বাচনী প্রক্রিয়া ত্রুটিপূর্ণ ছিল এবং বাক-স্বাধীনতায় প্রতিবন্ধকতা ছিল।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হিদার নওয়ার্ট বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের নির্বাচন পর্যবেক্ষণ মিশনের সিদ্ধান্তের সঙ্গে তারা একমত। ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে নির্বাচনের জন্য আইনি কাঠামোতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা হলেও বাক-স্বাধীনতার ওপর বিধিনিষেধ ও অসম প্রচারণার সুযোগের কারণে তা ঢাকা পড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র জানায়, সন্ত্রাসীদের সহযোগী ব্যক্তিদের ব্যাপারে দেশটির অবস্থান অত্যন্ত কঠোর। পাকিস্তানের ভোটাররা ব্যালটেই তাদের বর্জন করেছে।

নওয়ার্ট বলেন, ‘আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র রাজনীতিতে পাকিস্তানিদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর ক্ষেত্রে উৎসাহ দেওয়া অব্যাহত রাখবে।’ তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের নির্বাচিত নেতারা নতুন সরকার গঠন করলে দক্ষিণ এশিয়ায় নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা ও সমৃদ্ধির লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র তাদের সঙ্গে কাজ করবে।’

গত বুধবার পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এতে ১১০ আসনে জয় পায় সাবেক ক্রিকেট তারকা ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দল পিএমএল-এন ৬৩টি আসনে জয় পায়।

ইমরান খানের দলই পাকিস্তানে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে। তিনিই পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এরই মধ্যে ইমরান খান সরকার গঠনের জন্য তৎপরতা শুরু করেছেন।