Bangla Newspaper

খালেদাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে চিকিৎসা ষড়যন্ত্রের অংশঃ রিজভী

81

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়ার চক্রান্ত করছে সরকার। রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসার সুযোগ না দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসার কথা বলা সরকারের গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

সোমবার (১১জুন) দুপুর সাড়ে তিনটায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। দলের পক্ষ থেকে খালেদাকে পছন্দনুযায়ী ইউনাইটেট হাসপাতালে চিকিৎসা এবং ঈদের আগে নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানাানো হয়।

সংবাদ সম্মেলন থেকে নতুন কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়। আগামী ১৪ ই জুন ২৮ রমজান বেগম খালেদা জিয়ার নিশর্ত মুক্তি এবং তাঁর পছন্দনুযায়ী হাসপাতালে সুচিকিৎসার দাবীতে দেশের প্রতিটি জেলা প্রশাসন কার্যলয়ে স্মারকলিপি প্রদান করবেন জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

রিজভী বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে উদ্বেগ এবং উৎকন্ঠায় ভুগছে বিএনপি। ইর্ষা এবং প্রতিহিংসার কারণেই বেগম জিয়া কারাগারে আছেন। বিনা চিকিৎসায় ধুঁকে ধুঁকে বিপন্ন করার কারণেই করাগারে। চিকিৎসা না দেওয়া গভীর ষড়যন্ত্র। বিনা চিকিৎসায় তিলে তিলে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র চলছে। বিশেষ গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে অবাসযোগ্য কারাগারে রাখা হয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসন টিআই এ আক্রান্ত। অবজ্ঞা অবহেলায় কারগারে রাখা হয়েছে।

রিজভী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের পরীক্ষা-নিরীক্ষা বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে সম্ভব নয়। আধুনিক যন্ত্রপাতির সকল ব্যবস্থা ইউনাটেড হাসপাতালে রয়েছে। অতীতেও আওয়ামী লীগের সভানেত্রীসহ অনেক নেতাকে কারাগারে বন্দী থাকা অবস্থায় প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। তাহলে বেগম খালেদা জিয়াকে তাঁর পছন্দ মতো চিকিৎসা করতে না দেওয়া একজন বন্দীর প্রতি চরম মানবধিকার লঙ্ঘন। কারাগারে বিএনপি চেয়ারপারসনের অসুস্থতাকে আরও গুরুতর করে তাকে রাজনৈতিক ময়দান থেকে সরিয়ে দেয়ার সুগভীর চক্রান্ত হচ্ছে।’বর্তমানে তার (খালেদা জিয়া) যে শারীরিক অবস্থা তাতে দ্রুত চিকিৎসা না দিলে তার বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন রিজভী।

রিজভী বলেন, ‘আমরা বারবার দেশনেত্রীর অসুস্থতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেও এবং ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা তাঁর কোন কোন বিষয়ে জরুরি চিকিৎসা দরকার সে বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে আহ্বান জানালেও সরকার এবং কারা কর্তৃপক্ষ সব সময় এড়িয়ে চলছে। এ বিষয়ে এখনও তারা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।’

রিজভী বলেন, ‘খালেদা জিয়া দেশের মানুষের গণতন্ত্র ও কথা বলার অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার আন্দোলন করছেন। আর সেই জন্য তাকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছে। অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। গণতান্ত্রিক পরিবেশ তৈরি করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সবদলের অংশগ্রহণে নির্বাচন দিতে হবে।’

Comments
Loading...