সিরিয়ায় মার্কিন হামলাকে এরদোগানের স্বাগত

243
gb
জিবিনিউজ ডেস্ক::

যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্র ব্রিটেন ও ফ্রান্স যৌথভাবে শনিবার সিরিয়ায় আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। বিদ্রোহী অধ্যুষিত দামেস্কের উপকণ্ঠ দৌমায় মারাত্মক গ্যাস আক্রমণের এক সপ্তাহ পরই এ হামলা চালানো হলো।

দৌমার এ হামলার জন্য আসাদ সরকারকে দায়ী করা হচ্ছে। এ হামলায় শিশুসহ অন্তত ৮৫ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে সহস্রাধিক মানুষ।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেপ এরদোগান সিরিয়ায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের এ হামলাকে স্বাগত জানিয়েছেন। বলেছেন, ‘এ হামলা সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে একটা বার্তা দিচ্ছে।’

শনিবার জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির এক সমাবেশে তুরস্কের এরদোগান বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন যৌথ হামলা এই বার্তা দেয় যে কোনো অপরাধীই শাস্তির ঊর্ধ্বে নয়’।

তিনি এ হামলাকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ‘সিরিয়ার অসহায় নাগরিকরা দীর্ঘদিন যাবত অত্যাচার সহ্য করছে এর একটা জবাব দেয়ার দরকার ছিল’।

একই সাথে তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর সকল রাসায়নিক ও ভয়ঙ্কর অস্ত্র বিলুপ্ত করা উচিত, আমাদের মানবতার সেবার জন্য প্রতিযোগীতা করা উচিত অস্ত্রের জন্য নয়।’

হামলার পরপরই এরদোগান এ পরিস্থিতি নিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে ফোনে কথা বলেন।

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের হামলাকে স্বাগত জানিয়ে বলেন’ ‘দৌমায় যে গ্যাস হামলা হয়েছিল তা অমানবিক এটা অনির্দিষ্টকাল ধরে চলতে পারে না।’ সূত্র: আল জাজিরা