‘বয়স হলেও আমার মাথা ঠিক আছে’

415

জিবিনিউজ ডেস্ক:: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, বয়স হলেও আমার মাথা ঠিক আছে।

তিনি বলেছেন, আমরা নির্বাচনের রূপরেখা দিয়েছি। যারা আমরা সংসদে আছি, তাদের নিয়ে ছোট মন্ত্রীসভা গঠন করতে হবে। আমরা নিজেদের কাজ করবো। নির্বাচন পরিচালনা করবে কমিশন। সেখানে আমরা হস্তক্ষেপ করবো না। আমি সব কথা বলেছি, বয়স হয়েছে, মাথা ঠিক আছে।

শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় পার্টি আয়োজিত মহা সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

এরশাদ বলেন, ‘আজকের সমাবেশকে কী বলবো? জনসমাবেশ? জনসমুদ্র? মহাসমুদ্র? আমার হৃদয় আজ কানায় কানায় পূর্ণ। মানুষ আমার কাছে বার্তা চায়। কী বার্তা দেবো? প্রথম বার্তা, আমরা ইতিহাস সৃষ্টি করবো। আগামীতে সুষ্ঠু নির্বাচনে আমরা জয়ী হয়ে সরকার গঠন করবো।’

তিনি বলেন, ‘আজকে দেশে নিরাপত্তা নেই। আমরা ক্ষমতায় গেলে নিরাপত্তা দেবো। আমরা জনগণের কাছে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘২৫ বছর আমরা ক্ষমতায় নেই। ২৫ বছর এই দুই দল ক্ষমতায় ছিল। ২৫ বছরে এই দুই দল জনগণকে কী দিয়েছে? কিছুই দিতে পারে নাই। শুধু বড় বড় কথা।’

ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য জাতীয় পার্টি প্রস্তুত বলেও জানিয়েছেন দলটির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার গঠন করে ইতিহাস গড়ার ঘোষণাও দেন এরশাদ।

এরশাদ বলেন, শুধু বড় বড় কথা। আমরা উন্নয়নশীল দেশ হয়েছি, উন্নত হয়েছি। ঢাকায় চাকচিক্য আছে। ঢাকার বাইরে যেয়ে দেখেন দেশের মানুষের কী অবস্থা, মানুষ কীভাবে বাস করছে। খাবার আছে কিনা। দুবেলা খেতে পারে কিনা। তখন বুঝতে পারবেন আপনারা কতটুকু উন্নয়ন করেছেন।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, আমরা প্রমাণ করেছি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য আমরা প্রস্তুত। কোথাও সুখ নেই, কোথাও শান্তি নাই, নিরাপত্তা নেই, কোথাও চাকরি নেই। যুবকেরা চাকরি না পেয়ে মাদকে ঝুঁকছে। ব্যাংকে টাকা নেই। ব্যাংক লুটপাট। শেয়ার বাজার লুট করেছে। সব কিছুতে লুটপাট। সুখবর নেই কোথাও।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষায় পচন ধরেছে, শিক্ষায় গোল্লায় গেছে, যেখানে শিক্ষামন্ত্রী বলেন- সহনীয় পর্যায়ে ঘুষ খাবেন, আমরা সবাই ঘুষ খাই। সেই মন্ত্রী এখনও মন্ত্রীত্বে আছে। আগে পাস করা কঠিন ছিল, এখন ফেল করা কঠিন। এই যে অবস্থা এভাবে দেশ চলতে পারে না। পরিবর্তন আনতে হবে। জাতীয় পার্টি আগামী নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠনের শক্তি অর্জন করেছে।

সকাল সোয়া ১০টায় কোরআন তিলাওয়াত, গীতাপাঠ ও জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে এ সমাবেশ শুরু হয়।

এর আগে সকাল সোয়া ৯টার দিকে সমাবেশস্থলে প্রবেশ করেন পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এ সময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা স্লোগানে স্লোগানে তাকে স্বাগত জানান।

সমাবেশে পার্টির কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দীন বাবলু, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, সালমা ইসলাম, আব্দুস সাত্তার, বিরোধী দলের চিফ হুইপ তাজুল ইসলামসহ পার্টির ঊর্ধ্বতন নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে অংশ নিতে সকাল থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মিছিল নিয়ে প্রবেশ করে জাতীয় পার্টি ও সম্মিলিত জোটের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন