বয়স ত্রিশের পর যে ৬টি কাজ অবশ্যই বন্ধ করা উচিত—

967
gb

মো: নাসির নিউ জার্সি, আমেরিকা থেকে ||
ত্রিশ বছর বয়স কিন্তু একেবারে কম নয়। তবে বলাও চলে না বুড়িয়ে যাওয়া হয়েছে। এই সময়টা কেমন যেন অদ্ভুত একটি সময়। ত্রিশ বছর বয়সের আগে যাই করা হোক না কেন তা কিছুটা ছেলেমানুষী বলে পার পাওয়া যায়। কিন্তু এরপর থেকে আসলে একটু বুঝে শুনেই কাজ করতে হয়। আর সেটাই আপনার জন্য ভালো।
হুটহাট অনেক কিছু করে ফেলার প্রবণতা বেশি থাকলেও তা কিছুটা দমিয়ে আনাই ভালো ত্রিশের পড়। কারণ বয়স ত্রিশ পার হলে সকলেই নিজের জীবনটাকে একটু ভালো করে গুছিয়ে ফেলবেন বলে আশা করে থাকেন। তাই কিছু কাজ রয়েছে তা বয়স ত্রিশ পার হলে না করাই উত্তম। নিজের জন্যও এটি ভালো।

১)অযথা টাকা পয়সা খরচ করা
অনেকেরই টাকা পয়সা খরচ করার ক্ষেত্রে হিসাব করার বালাই থাকে না। যখন যেমন খুশি খরচ করতে থাকেন। একহাতে রোজগার অন্য হাতে খরচ। কিন্তু বয়স ত্রিশ পার হলে এই কাজটি মোটেও করা উচিৎ না। ভবিষ্যতের কথা ভেবে হলেও অযথা অদরকারে অর্থ ব্যয় বন্ধ করে সঞ্চয়ী হওয়া উচিৎ।

২)হুটহাট চাকরী ছেড়ে দেয়া
অনেকের বেলায় যে জিনিসটি অনেক বেশি ঘটে যেটা হলো কোনো সমস্যা হলেই চাকরী ছেড়ে দিয়ে থাকেন। এটি কিন্তু আপনার ক্যারিয়ারের ওপর অনেক বড় একটি প্রভাব ফেলে। আপনার এই হুটহাট চাকরী ছেড়ে দেয়া আপনার দায়িত্ব কর্তব্যে অবহেলা প্রকাশ করে যা কমবয়সী মানুষ করে থাকেন। কিছুটা হলেও বুদ্ধি খাটান। একেবারেই সিরিয়াস কিছু না হলে এই কাজটি করতে যাবেন না।

৩)যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে অতিরিক্ত সময় ব্যয় করা
ফেসবুক, টুইটার, ইন্সটাগ্রাম এখন আমাদের সকলের জীবনের সাথে জড়িয়ে গিয়েছে। তবে এর অতিরিক্ত ব্যবহার কিন্তু বয়স ত্রিশের আগেই মানায়। আপনাকে প্রথমে অন্যান্য ব্যাপারে গুরুত্ব দিতে হবে তারপরে যদি সময় হয়ে উঠে তবেই এইসকল যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে সময় দিন। নতুবা ইউনিভার্সিটি পড়ুয়া ছাত্র/ছাত্রীর মতো অনেক সময় এর পেছেনে ব্যয় করা আসলেই মানায় না।

৪)নিজের অতীতের ভুলগুলো ধরে বসে থাকা
আপনি যথেষ্ট ম্যচিউরড হয়েছেন। ছেলেমানুষের মতো নিজের জীবনের ভুলগুলো ধরে বসে থাকেন যদি আপনি এই বয়সেও, তবে আসলেই আপনাকে দিয়ে জীবনে কিছু হবে না। আপনার এখন জীবনের পেছনটা ভুলে সামনে বেশি মনোযোগ দেয়া উচিৎ।

৫)ক্ষতিকর বন্ধুদের সাথে সম্পর্ক রাখা
বয়স হলে মানুষের এইটুকু অন্তত বোঝার বুদ্ধি হয় কে ক্ষতি করছে এবং কে আসলেই শুভাকাঙ্ক্ষী। তাই আপনি যদি এই বয়সে এসেও সুসময়ের বন্ধুদের ধরে রাখেন তবে তা আপনার জীবনের ব্যর্থতা ছাড়া অন্য কিছু নয়।

৬)নিজের চিন্তাভাবনা প্রসারিত না করা
মানসিকতা প্রসারিত করার সময় এটাই। এখনো আপনি যদি কম বয়সের মোট একপেশে চিন্তা ভাবনা করেন, তবে জীবনে উন্নতি সম্ভব নয়। মানসিকতা খোলামেলা করার চেষ্টা করুন। নিজেকে উন্নত করার চেষ্টা করুন।