সপ্তম আশ্চর্য নিয়ে কলকাতার ইকো পার্ক

869
gb

মধুলীনা কলকাতা ||

বন্ধুরা একদম ঠিক ধরেছেন, পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্যগুলি একসাথে দেখতে আর অন্য কোথাও নয়, একেবারে ছুটে চলে আসুন কলকাতার ইকো পার্কে। কলকাতার বুকে 480 একর জায়গায় আপনি পাবেন সবুজে সবুজ ভরা প্রকৃতিতীর্থ। আর যার মাঝে দাঁড়িয়ে রয়েছে সেই আশ্চর্যগুলি – আগ্রার তাজমহল থেকে শুরু করে ব্রাজিলের ক্রাইস্ট দ্য রিডিমার, রোমের কলোসিয়াম, ইস্টার আইল্যান্ডের মূর্তিসমূহ, পেত্রার জর্দান, চীনের পাচীর, মিশরের পিরামিড সব যেন সত্যের ন্যায়। কলকাতা এয়ারপোর্ট থেকে মাত্র 10 কিলোমিটার দূরে রয়েছে নিউটাউন রাজারহাটে এই ইকো পার্ক ।

প্রতিদিন দেশ বিদেশের মানুষের ঢল নামে এই প্রকৃতিতীর্থে।যেখানে আপনি পাবেন সুসজ্জিত কটেজ থেকে শুরু করে গাড়ি পার্কিং সুব্যাবস্থা। পার্কেরএকপাশে জলরাশি অন্য পাশে প্রশস্ত রাস্তা তার মাঝে কার্পেটের মতো মেক্সিকান ঘাস,নারকেল গাছ আর বসার বেঞ্চ হঠাত্ কিছু ব্রোঞ্চ রঙের মূর্তি আপনার সাথে ছবি তোলার জন্য দৌড়াচ্ছে। আর্টিস্ট কটেজের কাছে মিউজিকাল ফাউনটেইন যেখানে সন্ধ্যা হলেই অসাধারণ শো হয়। অনেক দূর থেকে বাটার ফ্লাই গম্বুজটা চোখে পড়বে, সেখানে রয়েছে বিভিন্ন জাতের রং বেরং প্রজাপতি যারা আপনার সাথে ছবি তোলার জন্য অপেক্ষা করছে। ইকো পার্কের লেকে রয়েছে নানান ধরনের নৌকা, ডাললেকের মতো শিকারা, মোটর বোট, পাডেল বোট, জলস্কুটার এমনকী জ্ররবিং। রবীন্দ্রনাথের গীতাঞ্জলি দিয়ে সাজানো রবি অরণ্য। কাছেই রয়েছে পাখিরালয়, গোলাপের বাগান, বাঁশ বাগান, রেইন ফরেস্ট। বিষ্ণুপুর ঘরানায় টেরাকোটা মন্দির। তারপাশেই রয়েছে মুখোশের বাগান-যেখানে রাজ্যের জেলার এমনকী নানান দেশের বিভিন্ন ধরনের মুখোশ দেখতে পাবেন,যা আপনারা আগে দেখেছেন কিনা জানা নেই। অন্যদিকে সুসজ্জিত শিশু পার্ক, স্কালপচার গার্ডেন, ফুডকোর্ট, স্পা, মুক্তমঞ্চ, এমপিথিয়েটার, আর বাংলার ঐতিহ্য নিয়ে বাংলারহাট। রাস্তা পেরোলেই মাদার ওয়াস্ক মিউজিয়াম। আমাদের স্বপ্নের ঐতিহ্যময় এই কলকাতা নগরী আরো স্বপ্নময় করে তুলেছে আমাদের এই ইকো পার্ক।