লন্ডন টু সিলেট সরাসরি ফ্লাইট বাতিলের প্রতিবাদে বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের সভা

12
gb

জিবিনিউজ 24 ডেস্ক //

কভিড ১৯ এর কারন দেখিয়ে বিমানের লন্ডন টু সিলেট সরাসরি ফ্লাইট বাতিলের প্রতিবাদে গতকাল বুধবার ২৯শে জুলাই পূর্ব লন্ডনে বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন (ইউকে) এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ হরমুজ আলীর সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক নূরুল ইসলামের পরিচালনায় টাওয়ার হ্যামলেটস্ কাউন্সিলের কাউন্সিলার, স্থানীয় ব্যবসায়ী, কমিউনিটি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী জনগন উপস্থিত ছিলেন। সভায় প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করে একটি স্বারক লিপি প্রদান করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, প্রবাসী বিদ্বেষী একটি চক্র ভুল বুঝিয়ে সরকারকে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করেছে। সভায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে আবারো লন্ডন টু সিলেট ফ্লাইট চালুর পাশাপাশি সরাসরি সিলেট টু লন্ডন ফ্লাইটের দাবী জানান এবং বিমানের টিকের মূল্য কমানোর দাবী তুলেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন ব্রিকলেইন মসজিদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাজ্জাদ মিয়া, কাউন্সিলার আব্দুল মুকিত চুনু এমবিই, কাউন্সিলার তারিক আহমেদ খান, কাউন্সিলার সাদ চৌধুরী, কাউন্সিলার শাহ্ আমীন, কমিউনিটি নেতা আলতাফুর রহমান মুজাহিদ, ব্যবসায়ী হেলাল খান, আজমল হোসেন, হারুন মিয়া, সাংবাদিক আনসার আহমেদ উল্লাহ, রাজনীতিবিদ মারুফ চৌধুরী, শাহ্ শামীম আহমেদ, কমিউনিটি নেতা আঙ্গুর আলী, আহমেদ ফকর কামাল, বাবুল খান, আবুল কালাম আজাদ, আমিনুল হক জিলু, আলহাজ্ব ইউসুফ কামালী, আলহাজ্ব মতিউর রহমান, আলহাজ্ব সৈয়দ মুর্তোজা আলী সহ আরো অনেকে।
সভার সংগে একাত্বতা প্রকাশ করে ভিডিও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি, সিলেট-২ আসনের সাবেক এমপি, মোঃ শফিকুর রহমান চৌধুরী ।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্বারক লিপিতে যা লিখা হয়:

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারক-লিপিঃ

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা

গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, গনভবন

তেজগাঁও, ঢাকা – ১২১৫

বাংলাদেশ

তারিখঃ ২৭শে জুলাই ২০২০

মাধ্যমঃ বাংলাদেশ হাই কমিশন, লন্ডন, যুক্তরাজ্য

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,

বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলন, মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং পরবর্তীকালে সকল গনতান্ত্রিক আন্দোলন ও সংগ্রাম, প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং দুর্বিপাকে যুক্তরাজ্যসহ সকল প্রবাসী জনগন বাংলাদেশের মানুষের পাশে সব সময়ই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে এগিয়ে গিয়েছে। প্রবাসীদের এ অবদান জাতির জনক বংগবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করে তাঁদের সম্ভাব্য সকল প্রকার সুবিধা প্রদানের আপ্রান চেষ্টা করে গেছেন – পৃথিবীর কারো তা আজ অজানা নয়। ১৯৭৩ সালে জাতির জনক বংগবন্ধুই সিলেটে প্রথম কাস্টম এবং ইমিগ্রেসন সুবিধা চালু করেন।

মাননীয় নেত্রী, আপনার আন্তরিক প্রচেষ্টায়ই আমরা, প্রবাসী জনগন লন্ডন টু সিলেট সরাসরি ফ্লাইটের সুবিধা ভোগ করছি। আপনার আন্তরিক প্রচেষ্টায়ই ২০১৭ সালে সিলেটে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং আমরা কাস্টম এবং ইমিগ্রেসনসহ সকল সুবিধা ভোগ করছি। আপনি জানেন এ মাস থেকেই সিলেট টু লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট চালু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের সংগে বলতে হচ্ছে যে, কভিড-১৯ এর কারনে গত কয়েক মাস যাবত বন্ধ রয়েছে বিমানের লন্ডন টু সিলেট সরাসরি ফ্লাইট। সাম্প্রতিক সময়ে লন্ডন থেকে ঢাকা হয়ে সিলেট গেলেও গত রবিবার, ২৬শে জুলাই ২০২০ থেকে তাও বন্ধ হয়ে গেছে। যাত্রীদের এতদিন শুধুমাত্র লন্ডন থেকে বডিং পাস নিলেই হতো। কিন্তু লন্ডন টু সিলেট ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সিলেটের যাত্রীদের ঢাকায় ইমিগ্রেশন ও কাস্টমসহ সেখানেই তাঁদের ব্যাগেজ ক্লেইম করতে হবে এবং ঢাকা থেকে আবার নতুন করে বডিং পাস নিয়ে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে সিলেটে যেতে হবে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস্ (সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ) একটি নোটিশ দিয়ে জানিয়েছেন যে (অনুলিপি সংযুক্ত করা হলো), এখন থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে্ যাঁরা লন্ডন থেকে সিলেট যাবেন তাঁরা ঢাকায় ইমিগ্রেশন ও কাস্টম করে সেখানেই তাঁদের ব্যাগেজ ক্লেইম করতে হবে এবং ঢাকা থেকে আবার নতুন করে বডিং পাস্ নিয়ে সিলেটে যেতে হবে। এই আকস্মিক সিদ্ধান্তে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত আমরা সকল প্রবাসী বাংগালী বিস্মিত এবং মর্মাহত। এ ব্যাপারে মাননীয় জনমানুষের নেত্রী, আমরা আপনার সদয় হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এখানে উল্লেখ্য়, অন্য়ান্য় আন্তর্জাতিক এয়ারলাইনস্, বিশেষ করে আমিরাত এবং কাতার এয়ারওয়েজের ভাড়া বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস্ এর ভাড়ার প্রায় অর্ধেক।