কিভাবে আমি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে পারি?

অনেকে আমাকে জিজ্ঞেস করে। ভাই, অনলাইন থেকে কিভাবে টাকা আয় করতে পারি এবং কি ধরনের কাজ করতে পারি ? এই সম্পর্কে আমি আপনাকে একটি উপদেশ বা পরামর্শ দিতে চাই।

সংক্ষেপে কিছু পয়েন্ট :

১. প্রথমত আপনাকে সৎ হতে হবে এবং সত্য কথা বলতে হবে । কখনো লোভ করা যাবে না। অনেক সময় দেখবেন আপনার কথার উপর ভিত্তি করে, ক্লায়েন্ট আপনাকে পেমেন্ট পাঠিয়ে দিবে। আপনি কাজ করেছেন কিনা সেটা যাচাই করে দেখতে পারবে না।

২. গুগোল অথবা ইউটিউব, মানে আপনাকে সম্পূর্ণ ইন্টারনেট এর উপর নির্ভর করে সামনে আগাতে হবে ।

৩. প্রথমে, যে কোন ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট করা থেকে বিরত থাকুন। আগে কাজ শিখুন তারপর একাউন্ট করুন।

৪. কে আমাকে কাজ দেবে ? হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার আছে কিন্তু ভালো কাজ জানা ফ্রিল্যান্সার অনেক কম আছে। কাজ জানলে কাজের অভাব নেই।

৫. ভুরি ভুরি টিউটোরিয়াল ডাউনলোড বা কারো কাছ থেকে কালেক্ট করে কম্পিউটারে হার্ডডিক্স এ রাখর কোন অর্থ নেই। এক সময় দেখবেন কম্পিউটার হার্ডডিক্স এ খালি জায়গা থাকবে না কিন্তু আপনার ব্রেন পুরোটাই খালি , কিছুই শেখা হয়নি। তাই যখন যেই টিউটোরিয়াল পাবেন সেটি ভালো করে শিখে নিবেন।

৬. ভাই, কি কাজ করব ? কোন ধরনের কাজ করতে পারবো ? এই প্রশ্নের উত্তর যদি আপনি খুঁজে বের করতে পারেন, তাহলে আপনি ১০০ ভাগ নিশ্চিত, যে আপনি ফ্রীল্যান্সিং জগতে সফলতা অর্জন করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে কি করতে হবে ! প্রথমে ইউটিউবে অথবা গুগোল থেকে বের করুন কি কি ধরনের ফ্রিল্যান্সিং কাজ আছে । সবগুলো সম্পর্কে বেসিক ধারনা নিবেন । ধারণা নেওয়ার পরে তিন থেকে চারদিন শুধু চিন্তা করবেন। এখন একটু বেশি সময় দিতে পারেন কারণ এটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ ! কোন কাজটা আপনার জন্য সহজ । কোন কাজটি আপনি সহজেই করতে পারবেন।

এর কারণ কি জানেন ?? যে কাজটি করতে চাচ্ছেন এই কাজটি শিখার জন্য আপনাকে অনেক পরিশ্রম করতে হবে। উদাহরণস্বরূপ,ক্লাস ওয়ান থেকে শুরু করে অনার্স পর্যন্ত আপনার কত বছর লেখাপড়া করে, এত লেখাপড়া শিখে আপনি হয়তো বা ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকার মাসিক বেতনের চাকরি করতেছে। একটু চোখ বন্ধ করে চিন্তা করুন তো, কত কষ্ট করেছেন লেখাপড়া শেষ করতে । আর আপনি ফ্রিল্যান্সিং করে মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এরপর শুরু করে দিবেন আপনার কাঙ্ক্ষিত কাজটি শেখা । কিভাবে শিখবেন ? ইউটিউব দেখতে পারেন। গুগোল এ সার্চ করে শিখতে পারেন। সবচেয়ে ভালো হচ্ছে ইংরেজি টিউটোরিয়াল দেখলে। ইংরেজি ভালো না বুঝলে। গুগল ট্রান্সলেটর ব্যবহার করতে পারেন । গুগল ট্রান্সলেটর কোন বিকল্প নেই। অনেক সময় দেখবেন ক্লায়েন্ট ফ্রান্সের ভাষায় অথবা কোন ভাষায় মেসেজ দিবে । তখন আপনাকে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করে মেসেজটি বুঝতে হবে ।

৭. ভাই আমি ইংরেজি ভালো পারিনা, ফ্রিল্যান্সিং করতে পারব ?? ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য এত ফর্মাল বা গ্রামাটিকেল ইংরেজি দরকার হয়না । ইংরেজি জানলে ভাল। আপনি যে ক্লায়েন্টের সাথে কথা বলবেন সেও আপনার মত‌ই , হয়তো বা সেও ভালো ইংরেজি বলতে পারে না । এটা নিয়ে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। তাছাড়া গুগল ট্রান্সলেট তো আপনার পাশে আছেই।

৮. অন্যের কাজের প্রতি লোভ করা যাবে না । ঐ ভাইত, ঐ কাজটি করে, মাসে তিন হাজার ইউএস ডলার ইনকাম করে। ভাই, ঐ কাজটি আপনিও করতে পারবেন । কিন্তু আপনি কোন কাজটি ভালো পারবেন সেটা খুঁজে নিবেন । তা না হলে কাজ শিখতে শিখতে একসময় বোরিং হয়ে যাবেন । একসময় দেখবেন আর কাজ শিখতে ভাল লাগতেছে না । শুধু শুধু সময় নষ্ট করলেন।

ফ্রিল্যান্সিং জগতে সময় কে অনেক মূল্য দিতে হবে । এক ঘন্টায় ঘন্টাই হবে ।

আমার কিছু ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা শেয়ার করলাম । আপনিও শেয়ার করতে পারেন । আশা করি আপনার কাজে লাগবে ।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন