ওসমানীনগরে কোভিড ১৯ মানবতার সেবায় কাজ করে চলেছেন ওসি রাশেদ মোবারক।

95
gb

ওসমানীনগর (সিলেট) সংবাদদাতা:

বিশ্বজুড়ে প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস আতঙ্কে নিরব নিস্তব্দ লোকালয়। প্রাণের ভয়ে সকল শ্রেণী পেশার মানুষ। তার সাথে দেশে কর্মরত সরকারী চাকুরী জীবিদের সাধারণ ছুটি ঘোষনার পর ও মানবতার

সেবায় নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ প্রশাসন। নিম্ন আয়ের সাধারণ মানুষ নানা বিপাকে এবং তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে আতঙ্কগ্রস্থ। সারা দেশের ন্যায় ওসমানীনগরে মহামারি করোনার প্রায় ৩ মাস অতিক্রম করে চলেছে। ইতিমধ্যে সংক্রমন আইন ২০১৮ স্বাস্থ্য বিধি না মানার প্রবনতা ওসমানীনগরে বৃদ্ধি লক্ষনীয়। প্রবাসী অধ্যুসিত সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের মানুষের নানা সমস্যার কথা মাথায় নিয়ে। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে প্রাণঘাতি করোনার বিরুদ্ধে কাজ করে চলেছেন ওসি রাশেদ মোবারক সহ থানা পুলিশ সদস্যরা। উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে করোনা আক্রান্ত ২৯ জন এবং উপসর্গ নিয়ে সম্প্রতি মারা গেছেন ২ জন। করোনা থেকে উপজেলাবাসীকে রক্ষা করতে
দিবানিশি একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে গরিব আসহায় সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষকে সচেতন করতে নিষ্টার সহিত নিজ দ্বায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে, বর্তমান ওসি সহ থানা পুলিশকে। তার পাশাপাশি অনেক সময় নিজ উদ্যেগে চাল, ডাল সহ নিত্য পণ্য নিয়ে নিম্ন আয়ের অসহায় মানুষের পাশে দাড়াতে দেখা গেছে ওসি রাশেদ মোবারককে। হাটবাজারে জনর্দূরত্ব বজায় রাখার জন্য বিভিন্ন কৌশলে,প্রচার প্রচারণা সহ মাস্ক পরে চলাচলের পরামর্শ দিতে ও দেখা গেছে।
ঐতিহ্যবাহী ওসমানীনগর থানায় ওসি রাশেদ মোবারকের প্রায় ৮মাস অতিক্রম
কালে আইনশৃংখলার উন্নতি লক্ষনীয়। আগের তুলনায় বর্তমানে থানায় মামলার
সংখ্যা কম। করোনা ভাইরাসে উপজেলার কিছুকিছু অসহায় মানুষের পাশে এ ভয়ংকর পরিস্থিতিতে ব্যক্তিগত ভাবে অনেক সাধারন মানুষকে আর্থিক সহযোগীতা করেছেন তিনি। এভাবে প্রতিদিন নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে
জনগণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ রাশেদ মোবারক।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন