হোয়াইট হাউসের ভেতরেই বাঙ্কারে লুকিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট

87
gb

মো: নাসির, নিউ জার্সি, আমেরিকা থেকে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রাণ হারানোর ভয়ে সিক্রেট সার্ভিসের সহায়তায় হোয়াইট হাউসের ভেতরেই বাঙ্কারে লুকিয়েছিলেন। মার্কিন যুবক জর্জ ফ্লয়েড খুন হওয়ার ঘটনায় দেশব্যাপী বিক্ষোভের মধ্যে গত শুক্রবার তিনি ভয়ে বাঙ্কারে লুকিয়েছিলেন।
গতকাল রবিবার নিউইয়র্ক টাইমস এবং সিএনএন তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ওয়াশিংটনে ব্যাপক বিক্ষোভ ও সংঘর্ষের জেরে হোয়াইট হাউস লকডাউনে চলে যায়। ওই সময় ডোনাল্ড ট্রাম্প বাঙ্কারে লুকিয়েছিলেন।
মার্কিন কর্মকর্তারা নিউইয়র্ক টাইমসকে বলেছেন, তারা কখনোই ভাবেননি যে প্রেসিডেন্টের কোনো ধরনের ঝুঁকি ছিল। তবে ওই সময় উত্তেজনা বাড়ছিল। সিএনএন এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রায় এক ঘণ্টা বাঙ্কারে লুকিয়েছিলেন ট্রাম্প। জর্জ ফ্লয়েড হত্যার জেরে যুক্তরাষ্ট্রের অন্তত ৭৫টি শহর বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। জানা গেছে, কৃষ্ণাঙ্গ ওই যুবককে পুলিশি হেফাজতে হত্যা করা হয়। সিএনএন বলছে, পেন্টাগনের অনুরোধে হোয়াইট হাউসের কাছেই সেনা মোতায়েন করা আছে। তবে ট্রাম্পের অভিযোগ, শহরের মেয়র মুরিয়েল বাউসার হোয়াইট হাউসের আশেপাশে বিক্ষোভ সামলানোর জন্য নগর পুলিশকে জড়িত থাকতে দেননি। যদিও সিক্রেট সার্ভিসের সদস্যরা ভিন্ন কথা বলছেন। তাদের দাবি, ওয়াশিংটন পুলিশ সেখানে উপস্থিত ছিল। এদিকে ট্রাম্প টুইট করে জানিয়েছেন, বিক্ষোভকারী, ডেমোক্র্যাট মেয়র এবং এখানকার গভর্নরের বিরুদ্ধে সিক্রেট সার্ভিস পদক্ষেপ নেওয়ার অপেক্ষায় আছে। যারা হোয়াইট হাউসের নিরাপত্তা বেষ্টনি ভাঙার চেষ্টা করবে, তাদেরকে ক্ষ্যাপা কুকুর এবং ভয়ঙ্কর পরিণতি করতে পারার মতো অস্ত্রের সম্মুখীন হতে হবে।

এদিকে গত শনিবারও সিক্রেট সার্ভিসের সদস্যদের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ বাঁধে। রবিবারও বিক্ষোভ অব্যাহত থেকেছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন