পারিবারিক কবরস্থানে শায়িত হবেন বিএনপি নেতা সানাউল্লাহ মিয়া

103
gb
4

শনিবার নরসিংদী শিবপুরে নামাজের জানাজা শেষে কারারচর গ্রামের বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে শায়িত হবেন বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া। গতকাল শুক্রবার রাতে রাজধানীর শ্যামলী আল মারকাজুলে সানাউল্লাহ মিয়ার মরদেহ নিয়ে রাতেই নরসিংদীর উদ্দেশ্য রওনা দেন পরিবার।

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শুক্রবার রাত ৯টায় সানাউল্লাহ মিয়া গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। মৃত্যকালে তার বয়স হয়েছিলো ৬০ বছর। মৃত্যুকালে স্ত্রী ২ ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন তিনি।

বিএনপির আন্তজার্তিক বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার বলেন, সানাউল্লাহ মিয়া কিডনি জটিলতায় একোয়েট নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার রাতে মারা গেছেন।

কয়েক বছর আগে ব্রেইন স্টোককে আক্রান্ত হওয়ার পরও অসুস্থতার মধ্যেও দলীয় কর্মকান্ড ও আইনি পেশায় নিয়োজিত ছিলেন তিনি।

এক এগারোর সময়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানসহ দলের নেতা-কর্মীদের পক্ষে আইনি লড়াইয়ে আইনজীবী হিসেবে ব্যাপক পরিচিত লাভ করেন সানাউল্লাহ মিয়া।

নরসিংদীর শিবপুরে কারারচরে জন্মগ্রহনকারী সানাউল্লাহ মিয়া ঢাকা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের সভাপতি ছাড়া সুপ্রিম কোর্ট বার কাউন্সিলের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

সানাউল্লাহ‘র মৃত্যুতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পৃথক পৃথক বিবৃতিতে শোক প্রকাশ করে তার বিদাহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

সানাউল্লাহ মিয়ার মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর ধানমন্ডির গণস্বাস্থ কেন্দ্রে আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন তালুকদার দুলু, শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, শায়রুল কবির খানসহ নেতারা ছুটে আসেন।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন