১৬ দিনে সৌদি ফেরত ১৬১০ বাংলাদেশি

104
gb

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক //

সৌদি আরব থেকে আরও ১০৯ জন বাংলাদেশিকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) রাত ১১ টা ২০ মিনিটে সৌদি এয়ারলাইন্সের এসভি ৮০৪ বিমানযোগে তারা দেশে ফেরন। এ নিয়ে এ বছরের ১৬ দিনে এক হাজার ৬১০ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরলেন।

বরাবরের ন্যায় ফেরত আসাদের প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের সহযোগিতায় ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম থেকে জরুরি সহায়তা প্রদান করা হয়।

ফিরে আসা প্রবাসীরা জানান, পাসপোর্টে ভিসার মেয়াদ থাকার পরেও সৌদি পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। অনেক সময় চাকরিদাতা কফিল পুলিশের সঙ্গে কথা বলেও কাজ হয়নি। আবার অনেকে আকামা তৈরির জন্যে কফিলকে টাকা দিলেও আকাম তৈরি করা হয়নি। ফলে দেশে ফিরত পাঠানো হয়েছে তাদের।

ফেরা সিলেট জেলার তালেব (৩০) মানসিকভাবে সুস্থ ছিলেন না। রাতেই পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয় তালেবকে। পাঁচ বছর পূর্বে শ্রমিক হিসাবে সৌদি আরর গমন করেন তালেব। কিন্তু গত দুই মাস পূর্বে সেখান মানসিক ভারসাম্য হারান।

মুন্সিগঞ্জের রুহুল আমিন, কুমিল্লার ফিরোজ হোসেন ও মানিক, শরিয়তপুরের মিলন, যশোর জেলার মোসলেম উদ্দিন, বগুড়ার মেহেদি হাসান, গাজীপুরের রাজিবসহ ১০৯ বাংলাদেশি বেশিরভাগেরই এমন অবস্থা।

প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের তথ্য অনুযায়ী ২০১৯ সালে মোট ৬৪ হাজার ৬৩৮ কর্মী দেশে ফিরেছেন। এর মধ্যে সৌদি আরব থেকে ২৫ হাজার ৭৮৯ জন, মালয়েশিয়া থেকে ১৫ হাজার ৩৮৯ জন, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ছয় হাজার ১১৭ জন, ওমান থেকে সাত হাজার ৩৬৬ জন, মালদ্বীপ থেকে দুই হাজার ৫২৫ জন, কাতার থেকে দুই হাজার ১২ জন, বাহরাইন থেকে এক হাজার ৪৪৮ জন ও কুয়েত থেকে ৪৭৯ জন শূন্য হাতে ফিরেছেন যাদের পরিচয় ডিপোর্টি।

ব্র্যাক অভিবাসন কর্মসূচির প্রধান শরিফুল হাসান জানান, সৌদি আরব ২০১৯ সালে ২৫ হাজার ৭৮৯ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এ বছরের গত ১৬ দিনে সৌদি থেকে ফেরত আসলো ১ হাজার ৬১০ জন প্রবাসী শ্রমিক। ফেরত আসাদের বর্ণনা প্রায় একইরকম। প্রায় সবাই খালি হাতে ফিরেছেন। কয়েকমাস আগে গিয়েছিলেন এমন লোকও আছেন। তারা সবাই ভবিষ্যত নিয়ে এখন দুশ্চিন্তায়।