যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন দলে উগ্র মুসলিমবিদ্বেষী দলের পাঁচ হাজার সদস্য

96
gb

জিবিনিউজ 24 ডেস্ক//

যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ পার্টিতে যোগ দিয়েছে দেশটির উগ্র মুসলিমবিদ্বেষী সংগঠন ব্রিটেন ফার্স্ট-এর পাঁচ হাজারেরও বেশি সদস্য। যুক্তরাজ্যের গত সাধারণ নির্বাচনের পর থেকে তারা দলটিতে যোগ দিয়েছেন। এসব ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, ইসলামের প্রতি বর্তমান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন-এর নেতিবাচক মনোভাবে ‘অনুপ্রাণিত’ হয়ে তারা দলটিতে যোগদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শনিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্রিটেন ফার্স্ট-এর স্বাক্ষরিত সাড়ে সাত হাজার সদস্যের মধ্যে প্রায় দুই তৃতীয়াংশই খোলাখুলিভাবে ইসলামবিদ্বেষী। গত বছরও মুসলমানদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষজনিত অপরাধের দায়ে দলটির নেতাদের কারাগারে যেতে হয়েছিল। এখন কনজারভেটিভ পার্টিতে যোগ দেওয়া দলটির সাবেক নেতারা বলছেন, মৌলবাদী ইসলামের বিরুদ্ধে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর মনোভাব তাদের পুরনো দলের অধিকাংশ সদস্যকে অনুপ্রাণিত করেছে।

ব্রিটেন ফার্স্ট-এর মুখপাত্র অ্যাশলে সিমন। কিছুদিন আগে দলের ঊর্ধ্বতন নেতাদের সঙ্গে সঙ্গে তিনি সন্ত্রাসবিরোধী পুলিশের তদন্তের আওতায় ছিলেন। তিনি বলেন, আমরা এমন একটি দলকে সমর্থন করবো যারা মৌলবাদী সলামের বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থান নিতে আগ্রহী। দৃশ্যত কনজারভেটিভ পার্টি তা করতে রাজি আছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ব্রিটেন ফার্স্ট-এর তিনটি উস্কানিমূলক মুসলিমবিদ্বেষী ভিডিও রিটুইট করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে দুঃখ প্রকাশ করেন ট্রাম্প। এছাড়া, বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে গত বছর ব্রিটেন ফার্স্ট-এর ২০ লাখ লাইক সম্বলিত ভেরিফায়েড পেজ বন্ধ করে দেয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।