পাকিস্তানের অধিকারে থাকা কাশ্মীরও দখলে নেবে ভারত

31
gb

বিশেষ প্রতিনিধি জিবি নিউজ ২৪

জাতিসংঘের আসন্ন সাধারণ অধিবেশনের পার্শ্ববৈঠকে সার্কভুক্ত দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। সেখানে উপস্থিত থাকবেন ভারত ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা। সেই বৈঠকে যে কাশ্মীর ইস্যুকে কেন্দ্র করে দু দেশের কর্মকর্তাদের মধ্যে উত্তাপ ছড়াবে তা নিশ্চিত। ওই বৈঠকের আগেই ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুব্রাহ্মনিয়াম জয়শঙ্কর পাকিস্তানের দখলে থাকা আজাদ কাশ্মীর দখলে নেয়ার হুমকি দিয়েছেন।  মঙ্গলবার ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর বলেন, ‘পাক-অধিকৃত কাশ্মীর সর্বদাই ভারতের অংশ। আমরা আশা করি একদিন তা আমাদের নিয়ন্ত্রণে আসবে।’

কাশ্মীরের সবচেয়ে জনবহুল এলাকা কাশ্মীর উপত্যকা ভারতের শাসনাধীন, অপরদিকে কাশ্মীরের পশ্চিমাংশ পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণে। নিজেদের নিয়ন্ত্রিত ওই এলাকাকে পাকিস্তান ‘আজাদ কাশ্মীর’ বললেও নয়া দিল্লি ওই অংশটিকে ‘পাকিস্তান-অধিকৃত কাশ্মীর’ (পোক) বলে বর্ণনা করে থাকে।

সংবাদ সম্মেলনে জয়শঙ্কর বলেন, ‘পোকের বিষয়ে আমাদের অবস্থান সব সময় অত্যন্ত পরিষ্কার আছে এবং থাকবে। পোক ভারতের অংশ এবং আমরা আশা করছি একদিন এর ওপর আমরা আইনগত অধিকার, বাস্তব আইনগত অধিকার লাভ করবো।’

তবে জয়শঙ্করের এই মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করেছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে তারা বলেছে, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ ধরনের বক্তব্যে ‘উত্তেজনা আরও বেড়ে যাবে’এবং এতে ওই অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তা ‘গুরুতরভাবে বিপন্ন’ হতে পারে।

প্রসঙ্গত, গত ৫ আগস্ট ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে মোদি সরকার। এই ঘটনাকে কেন্দ্র ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার উত্তেজনা চরম আকার ধারণ করেছে। দু দেশের নেতারাই বিভিন্ন সময়ে পরস্পরের বিরুদ্ধে হামলার হুমকি দিয়ে আসছে। পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়টি জাতিসংঘ অধিবেশনে উত্থাপন করতে মুখিয়ে আছে। যদিও কাশ্মীর ইস্যুটিকে নিজেদের আভ্যন্তরীণ সমস্যা বলে আন্তর্জাতিক মহলের সমালোচনা উপেক্ষা করতে তৎপর রয়েছে নয়াদিল্লি।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More