পলাশবাড়ী পৌরসভার নির্বাচন সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড় ঝাপ, এগিয়ে আবুল কালাম

112
gb

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি ||

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার নবগঠিত পলাশবাড়ী পৌরসভার আসন্ন নির্বাচনে মেয়র এবং কাউন্সিলর পদে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ছড়াছড়ি ও দৌড় ঝাপ দেখার মত।

প্যানা-বিলবোর্ড ও পোস্টার-লিফলেটে পৌরসভা সিমানার সর্বত্র ছেঁয়ে গেছে।এসব প্রচার-প্রচারনার ক্ষেত্রে পরিস্থিতি এমনই হয়েছে যে নতুন করে কোন প্যানা বা বিলবোর্ড টাঙ্গানোর কোন পয়েন্টই আর খালি নেই।

যেদিকে চোখ যায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের ছবি ও পরিচিতিসহ দোআ কামনা করে নানা রংবেরঙের ছোট-বড় প্যানা-বিলবোর্ড ছাড়া যেন আর কিছুই মিলছেনা।

উৎসূক পথচারিসহ স্থানীয়রা পয়েন্টে-পয়েন্টে থমকে দাঁড়িয়ে দুই নয়ন ভরে এসবের আস্বাদন নিচ্ছেন।ভোটারদরাও এসব দেখেই ক্ষান্ত।তাদের কথা একটাই-এখুনি কোন সিদ্ধান্ত নয়, তবে তরুন ও জনবান্ধব সালামে ও কুশোল বিনিময়ে সবার চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে রয়েছেন পৌর বিএনপির আহবায়ক ও গাইবান্ধা জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজদ।

সর্বশেষ পরিস্থিতি বুঝেই কেবল শেষ সিদ্ধান্ত নিবেন ভোটাররা ।

পলাশবাড়ীতে স্থানীয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রার্থীতার সংখ্যা অতীতের সব রেকর্ড ভঙ্গ।যে কোন সময়ের তুলনায় সম্ভাব্য প্রার্থী সংখ্যা অসংখ্য। প্রতিক দিয়ে নির্বাচন হলে সে ক্ষেত্রে আবুল কালাম আজাদ বিএনপি তথা ২০ দলীয় একক প্রার্থী। সরকার দলের প্রার্থী অনেক । কে পাবেন নৌকার মাঝি তা দলের শীর্ষ নেতারাই জানে না।

উপজেলার ৩নং পলাশবাড়ী ইউনিয়ন(সদর) পুরোপুরিই বিলুপ্তি ঘটেছে।এক্ষেত্রে উপজেলা পরিষদ ৯-এর স্থলে এখন ৮ ইউনিয়ন নিয়ে পরিচালিত হচ্ছে।পলাশবাড়ী ইউনিয়নের মোট ১৯ গ্রাম,কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের ৪ এবং বরিশাল ইউনিয়নের ১টিসহ মোট ২৪ গ্রাম নিয়ে পলাশবাড়ী পৌরসভা গঠিত হয়েছে।

হোটেল রেস্টুরেন্ট,চায়ের স্টল,জনসমাগমস্থল ছাড়াও চিহৃিত বিভিন্ন নানা পয়েন্টসহ সর্বত্রই একই আলাপ- চারিতা শেষ পর্যন্ত মেয়র এবং কাউন্সিলর পদে দলমত নির্বিশেষে কে-কে হচ্ছেন প্রার্থী,নির্বাচনের দিনক্ষণ, সম্ভাব্য প্রার্থীদের জনপ্রিয়তা ও ভোট প্রাপ্তির হিসেব নিকেশসহ চুলচেঁরা নানা পরিসংখ্যান।

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More