হো চি মিন ছিলেন গোটা বিশ্বের সংগ্রামী মানুষের নেতা : ন্যাপ মহাসচিব

75
gb
জিবি নিউজ ২৪ ||

হো চি মিন ছিলেন গোটা বিশ্বের সংগ্রামী মানুষের নেতা মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে হো চি মিনের নেতৃত্বে দু’দেশকে একীকরণের যে বীরত্বপূর্ণ লড়াই ভিয়েতনামের জনগণ করেছিলেন, তা মানব সভ্যতার ইতিহাসে চিরগাঁথা হয়ে থাকবে।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময়েই নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে ভিয়েতনামের মানুষের কাছে তিনি হন হো চি মিন (আলোর দিশারী)। বিশ্ববাসীর কাছেও এ নামেই তিনি পরিচিত। ভিয়েতনামের মুক্তিযুদ্ধে তার অসামান্য অবদান পৃথিবীর মুক্তিকামী ও সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামরত মানুষের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। কমরেড হো চি মিনের জীবন আজো দুনিয়ার শোষিত-নিপীড়িত মানুষের কাছে অসামান্য প্রেরণা।

মঙ্গলবার নয়াপল্টনের যাদু মিয়া ভিয়েতনামের মহান বিপ্লবী নেতা হো চি মিনের ৫০তম মৃত্যু বার্ষিকী স্মরণে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সকল দেশের সকল জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামে মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর ছিল সর্বাত্মক সমর্থন। ষাট এর দশকে যখন চীনের নেতাদের সাথে ভাসানীর ব্যক্তিগত যোগাযোগ স্থাপিত হয় তখন তাদের মাধ্যমে ভিয়েতনামের সমাজতান্ত্রিক নেতাদের সঙ্গেও তাঁর যোগাযোগ স্থাপিত হয়। হো চি মিনকে তিনি অকুন্ঠ সমর্থন জানিয়ে পত্র দিয়েছিলেন তিনি। হো চি মিনের প্রতি তাঁর ছিল গভীর শ্রদ্ধা। প্রেসিডেন্ট হোর মৃত্যুতে তিনি যথার্থ অর্থেই মর্মাহত হয়েছিলেন। ১৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দের ৫ সেপ্টেম্বর পাবনার ঈশ্বরদি থেকে দেয়া এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, ‘হো চি মিনের মৃত্যু বিশেষভাবে উত্তর ভিয়েতনামীদের জন্য এবং সাধারণভাবে এশিয়া, আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার জনসাধারণের জন্য বিরাট ক্ষতি। হো ছিলেন ভিয়েতনামের এক কথায় গোটা বিশ্বের সংগ্রামী মানুষের নেতা।’

ন্যাপ মহাসচিব বলেন, প্রযুক্তি, সামরিক ও অর্থনৈতিক সকল দিক দিয়ে ফ্রান্স, জাপান ও আমেরিকার তুলনায় ভিয়েতনামের শক্তি ছিল নগণ্য। কিন্তু ভিয়েতনামীদের শক্তির উৎস ছিল বিপ্লবী মন্ত্র, বিপ্লবী দর্শন, সঠিক পার্টি ও নেতৃত্ব। সে কারণে ফ্রান্স, জাপান ও আমেরিকার মত অসম শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করে ভিয়েতনামী জনগণ উপনিবেশিক শাসন থেকে নিজেদের মুক্ত হতে সক্ষম হয়। মুক্তি ও স্বাধীনতার লড়াইয়ে ভিয়েতনাম একটি আলোচিত অধ্যায়। বিশ্বের অধিকারহারা নিপীড়িত ও নিযাতিত  মানুষের ভিয়েতনামীদের কাছ থেকে শেখার অনেক কিছু আছে।

সাধারণ ধারণা রাখার জন্যও ভিয়েতনামের মুক্তি সংগ্রাম ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্য পাঠ্য হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ভিয়েতনামের স্বাধীনতা সংগ্রামের পুরোধা ব্যক্তিত্ব হো চি মিন। বিশ্ব ইতিহাসে যে কয়জন ব্যক্তি একটি জাতির জন্য স্বাধীনতার দূত হয়ে এসেছিলেন হো চি মিন তাদের মধ্যে অন্যতম। একজন সাধারণ মানুষ কীভাবে একটি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা হয়ে উঠতে পারেন তারই বড় প্রমাণ হো চি মিন। এই আধুনিক বিশ্বেও তার কীর্তি সবার জন্য অনুপ্রেরণীয়।

বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ন্যাপ ভাইস চেয়ারম্যান কাজী ফারুক হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব মো. আতিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, সহ-সম্পাদক এডভোকেট আবদুস সাত্তার, মহানগর যুগ্ম সম্পাদক মো. শামিম ভুইয়া, শ্রম সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান, মহিলা সম্পাদিকা সাদিয়া ইসলাম ঈমন, যুব ন্যাপ সমন্বয়কারী বাহাদুর শামিম আহমেদ পিন্টু প্রমুখ।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More