কাশ্মিরে ভারতীয় সন্ত্রাসবাদ বন্ধের দাবীতে ইসলামী ছাত্র খেলাফতের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

109

কাশ্মির ইস্যুতে বিশ্বনেতৃবৃন্দকে ভারতের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান গ্রহণ করতে হবে -মানববন্ধনে বক্তারা

ভারত সরকার কর্তৃক সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের প্রতিবাদ ও সেখানে ভারতীয় সন্ত্রাসবাদ বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন করেছে ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ।

আজ বুধবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি ছাত্রনেতা আবু জাফর সালেহের সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল মোঃ আবুল হাসিম শাহীর পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আনসারুল হক ইমরান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা আনছারুল হক ইমরান বলেন, কাশ্মীর একটি বিরোধপূর্ণ অঞ্চল, যা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত বিষয়। কাশ্মির বিষয়ে ভারতের একতরফা সিদ্ধান্ত নেয়ার কোন অধিকার নেই। ভারত যা করছে এটা অন্যায়, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড। দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি চাইলে বিশ্বনেতৃবৃন্দকে কাশ্মির ইস্যুতে ভারতের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান গ্রহণ করতে হবে।

তিনি বলেন, মোদি-অমিত শাহ্ সরকার ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদ করে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন ও বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে কাশ্মিীর উপত্যকাকে কারাগারে পরিণত করেছে। আমরা মনে করি, কাশ্মীরবাসী যে আশা ও আকাঙ্খা নিয়ে ৭০ বছর আগে ভারতের সাথে যুক্ত হয়েছিল, বিতর্কিত এই বিলের মাধ্যমে সেই আশা ও আকাঙ্খাকে জলাঞ্জলি দেয়া হয়েছে। প্রতারণা করা হয়েছে কাশ্মীরীদের সাথে।

তিনি আরো বলেন, ভারত দমন-পীড়ন চালিয়ে ও গায়ের জোরে কাশ্মীরকে দ্বিখন্ডিত করে নিজেদের ফায়দা লাভের যে স্বপ্ন দেখছে, তা কোনদিনই বাস্তবায়ন হবে না। এতে সংকট আরো ঘণিভূত হবে। এর পরিণতি ভারতকে ভোগ করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু জাফর সালেহ বলেন, ভারতের বিজেপি সরকার মুসলমানদের কোণঠাসা করার করতেই কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছে। ভারতের এই সিদ্ধান্ত অগ্রহণযোগ্য, বিদ্বেষমূলক ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমরা কাশ্মিরে ভারতের এমন নিষ্ঠুর সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সেক্রেটারী জেনারেল আবুল হাসিম বলেন, কাশ্মিরীরা সংগ্রামী জাতি। ৭০ বছর যাবৎ তারা লড়াই করছে। প্রয়োজনে নিজেদের অধিকার আদায় ও অস্থিত্ব রক্ষায় আবারো লড়াই করবে। তবুও ভারতীয় আধিপত্যবাদ মেনে নেবে না। আমরা ভারত সরকারকে কাশ্মিীরের বিশেষ মর্যাদা ফিরিয়ে দিয়ে সেখানে শান্তি ও স্থিতিশীল পরিবেশ তৈরির আহবান জানাচ্ছি।

মানববন্ধন থেকে বক্তারা আগামী শুক্রবার বাদ জুমা দেশের প্রতিটি মসজিদে নির্যাতিত কাশ্মিরী মুসলমানদের জন্য দোয়া করার আহবান জানান। একই সাথে দেশবাসীকে যার যার অবস্থান থেকে কাশ্মিরে ভারতীয় দখলদারিত্বের প্রতিবাদে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালনের অনুরোধ জানান।

মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন-ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দীন, প্রচার সম্পাদক আব্দুল্লাহ ফরহাদ, দপ্তর সম্পাদক ইলিয়াছ আহমদ, বাইতুল মাল সম্পাদক আল আমিন, ছাত্র কল্যাণ সম্পাদক হাফেজ তকদির হোসাইন,খুলনা বিভাগীয় সম্পাদক মাহমুদুল হাসান শাহেদী, ময়মনসিংহ বিভাগীয় সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর কমিটির সহ-সভাপতি শরিফুল হায়দার, সাধারণ সম্পাদক সানাউল্লাহ খাঁন, ছাত্রনেতা ছাত্রনেতা ফয়জুর রহমান ফয়েজ,সুলাইমান,নিয়ামতুল্লাহ প্রমুখ।