স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা বৃদ্ধি এবং সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে শ্রীমঙ্গলে স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষের সাথে সনাক এর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

72

সৈয়দ ছায়েদ আহমদ,শ্রীমঙ্গল থেকে:

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে স্থানীয় সরকার খাতে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা বৃদ্ধি এবং সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষের সাথে সনাকের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দুপুর ১২টায় গ্র্যান্ড তাজ রেন্টুরেন্ট এন্ড পার্টি সেন্টারে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশাল বাংলাদেশ (টিআইবি) এর অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) শ্রীমঙ্গল এর উদ্যোগে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন। সনাক সভাপতি সৈয়দ নেসার আহমদ এর সভাপতিত্বে ও সনাক সদস্য আরিফ আলী নাসিম এর সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন শ্রীমঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ভানু লাল রায়, আশীদ্রোন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রনেন্দ প্রসাদ বর্ধন জহর, রাজঘাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিজয় বুনার্জী, কালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান মজুল, সিন্দুরখান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল্লাহ আল হেলাল, ভুনবীর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: চেরাগ আলী, সাতগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিলন শীল, কালিঘাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রানেস গোয়াল। মতবিনময় সভায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং সদস্যদের স্বল্প সন্মানী ভাতা এবং বিভিন্ন প্রতিকুল পরিস্থিতির স্বত্বেও তারা আন্তরিকতার সাথে তাদের দায়িত্ব পালন করছেন। তবে জনগণকে আরও সম্পৃক্ত করে কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা গেলে কাজের গুনগতমান আরও বৃদ্ধি পাবে। এসময় সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দের সহযোগিতায় আগামী এক বছরের জন্য একটি কর্মপরিকল্পনা তৈরী করা হয়। চেয়ারম্যানদের এই কর্মপরিপল্পনায় খুবই জরুরী বলে মত প্রকাশ করেন ডিডিএলজি উপ-পরিচারক। তিনি বলেন এটি আগামী বছর সনাকের এই মতবিনিময় সভায় আমরা আমাদের কাজের মূল্যায়ন করতে পারবো। সনাক শ্রীমঙ্গল স্থানীয় সরকার উপ-কমিটি আহŸায়ক জহর তরফদার সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ধারণাপত্র উপস্থাপনা করেন টিআইবি এরিয়া ম্যানেজার পারভেজ কৈরী এবং সনাকের সহ সভাপতি দ্বীপেন্দ্র ভট্টাচার্য। এছাড়া সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সনাক সদস্য অয়ন চৌধুরী, কবিতা রানী দাশ, জিডিশন প্রধান সূছিয়াং, অধ্যাপক কমল কলি চৌধুরী, স্বজনের সাবেক আহবায়ক সৈয়দ ছায়েদ আহমদ এবং বর্তমান যুগ্ন আহবায়ক দেলওয়ার হোসেনসহ টিআইবি কর্মীবৃন্দ। সনাক সভাপতি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠায় সকলের অংশগ্রহণের উপর গুরুত্বআরোপ করেন এবং সামনের দিনগুলিতে পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে আরও কার্যকর অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রত্যশা ব্যক্ত করেন। প্রধান অতিথি স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন বলেন, সীমাবদ্ধতা স্বত্তে¡ও স্থানীয় পর্যায়ের উন্নয়নের ধারা অব্যহত রেখে দেশের সার্বিক উন্নয়নে অবদান রাখার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন জনপ্রতিনিধিরা সেই জন্য তিনি তাদের ধন্যবাদ জানান। ‘স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা শক্তিশালী করতে হলে আগে সকল সমস্যা চিহ্নিত করে ভিতরে প্রবেশ করতে হবে। সমস্যা যদি আমরা চিহ্নিত করতে পারি তাহলে সমস্যার অর্ধেক সমাধান হয়ে যাবে। আমরা অনেক সময় অনেক প্রকল্প বাস্তবায়ন করে থাকি সেখানে সচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে। বর্তমানে অনেকে তথ্য প্রযুক্তির ফলে বিভিন্ন তথ্য জানতে পারছে। তাই জনগনের সেবা গ্রহণের প্রবনতাও বেড়ে গেছে। আইন ও নীতিমালা মেনে চললে, জনগণকে শক্তি হিসেবে ব্যবহার করলে, ওয়ার্ড সভা নিয়মিত করলে, নারী সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধি করলে ও সকল প্রকল্পের তথ্য জণগণের জন্য উন্মুক্ত করলে ইউনিয়ন পরিষদ ও চেয়ারম্যানগণ আরও শক্তিশালী হবে। তিনি আরো বলেন, দুর্নীতি শুধু টাকার সাথেই সংশ্লিষ্ট নয়, নিয়মনীতি না মানাও দুর্নীতি। নিয়মনীতি মেনে চললে দুর্নীতি কমে আসবে। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হলে দুর্নীতি হ্রাস পাবে। ওয়ার্ড সভা সঠিকভাবে হলে জনগণের প্রকৃত ক্ষমতায়ন হবে। ইউনিয়ন পরিষদের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্টদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা দরকার।