মৌলভীবাজার পৌরসভার ২০১৯-২০ সালরে ১৪২ কোটি টাকার বাজটে ঘোষনা

161

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি\

নতুন কোনো করারোপ ছাড়াই মৌলভীবাজার পৌরসভার ১৪২ কোটি ২৮ লক্ষ ৪০ হাজার ২৮০ টাকার উন্মুক্ত বাজটে ঘোষণা করা হয়েছে ৩০ জুন রোববার দুপুরে পৌর মলিনায়তনে সাংবাদকি ও পৌর নাগরকিদরে উপস্থতিেিত ২০১৯-২০ র্অথ বছররে প্রস্তাবতি বাজটে ঘোষণা করনে পৌর ময়ের মোঃ ফজলুর রহমান। পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) রনধীর কুমার রায়রে সঞ্চালনায় বাজটেরে উপর মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখনে প্রেসক্লাবরে সভাপতি আবদুল হামদি মাহবুব, সাংবাদিক হুমায়েদ আলী শাহিন সালহে এলাহি কুটি বকসী ইকবাল আহমদ, এনটভিরি স্টাফ রিপোর্টার এস এম উমদে আলী সহ অন্যান্যরা। বাজটে ঘোষনাকালে মেয়র বলনে, পৌর নাগরকিদরে সার্বিক সুযোগ-সুবিধা, মান সম্পন্ন সেবা প্রদানের তিকে লক্ষ্য রেথে এ বাজটে করা হয়েছে। নতুন করারোপ ছাড়াই মৌলভীবাজার পৌরসভার ২০১৯-২০২০ র্অথ বছররে ১৪২ কোটি ২৭ লক্ষ ৪০ হাজার ২৭৯ টাকার প্রস্তাবতি বাজটে ঘোষণা করা হয়েছে বাজেেট মৌলভীবাজার শহররে সৌর্ন্দযর্বধনরে জন্য বশে কছিু উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নওেয়া হয়েছে এর উল্লেখযোগ্য হল বেরি লেইক, কুদালছিড়া, কয়কেটি পুকুর ও দিঘী সুর্ন্দযর্বধন, নারী ও পুরুষের বিনোদনের জন্য পৃথক বসা ও পায়ে হাটার জন্য ফুটপাত,ফুলবাগান ও ড্রনে সংস্কার ও নির্মান সহ নানা দৃশ্যমান উন্নয়ন কাজ। মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র মোঃ ফজলুর রহমান ২০১৯-২০২০ র্অথ বছররে বাজটে ঘোষণা শেষে তার বক্তব্য প্রয়াত র্অথ ও পরকিল্পনা মন্ত্রী এম সাইফুর রহমান ও প্রয়াত সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলীসহ পৌরসভার সাবকে মেয়র ও কাউন্সলিরদরে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করনে। প্রবাসীসহ যে সকল পৌর নাগরীকরা নানা ভাবে পৌরসভার উন্নয়নে সহযোগীতা করছেন তাদরে প্রতি ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করনে। তিনি বলেন পৌর নাগরিকদের সহায়তা ছাড়া এই বাজেট বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। তাই নাগরিকদের নিমিয়ত পৌর কর পরিশোধসহ অনুষাঙ্গকি বিষয়ে সহযোগীতা প্রয়োজন। পৌর শহররে ড্রনেজে ও কুদালি ছড়া পরষ্কিার পরিচন্ন রাখার বিষয়ে তিনি নাগরিকদের সহযোগতিা চান এবং সকলরে সচতেনতা প্রত্যাশা করনে। তা না হলে শুধু পৌরসভার পক্ষে এই শহর পরস্কিার পরিচন্ন রাখা ও উন্নয়ন কাজ করা সম্ভব নয়। কুদালি ছড়া প্রসঙ্গে বক্তব্য কালে মেয়র আবগোপ্লুত হয়ে কান্নাজড়তি কন্ঠে বলনে কুদালি ছড়া খনন সংস্কার ও রক্ষা করতে গিয়ে সবাইকে নিয়ে কাজ করেছি। কন্তিু কষ্ঠ দায়ক হল শহররে পানি নষ্কিাশনরে একমাত্র ছড়া ও প্রাণ কুদালি ছড়া কছিু নাগরিকদের অবহেলার কারনে তাদের ফেলে দেওয়া ময়লার কারনে কুদালি ছড়ার বিভিন্ন জায়গা ভরাট হচ্ছে। তিনি শহররে একমাত্র পানি নিষ্কাসনের খাল কুদালীছড়া ময়লা আর্বজনা না ফলোর জন্য পৌর নাগরিকদের আহবান করেন। মেয়র শহরকে পরিছন্ন রাখতে ইতোমধ্য কয়েকটি উদ্যোগ নিয়েছেন বলে জানান। বাজটে ঘোষনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পৌর কাউন্সলির মনবীর রায় মঞ্জু, ফয়ছল আহমদ, স্বাগত কেিশার দাশ চৌধুরী, আনিছুজ্জামান বায়ছে, নাহীদ আহমদ, শ্যামলী দাশ পুরকায়স্থ, পৌরসভার সচিব মোঃ ইসহাক ভুইয়া, সাবেক নির্বাহী প্রকৌশল আবুল হোসনে খান সহ পৌর র্কমর্কতা-র্কমচারীগণ । বাজেটে উল্লেখযোগ্য আয়ের উৎস ধরা হয়েছে ইউজিআইপি-৩, রাজস্ব খাত, পানি সরবরাহ, ক্ষুদ্র ঋণ, এডিপি. নগর অবকাঠামো প্রকল্প, বিএমডিএফ প্রকল্প ইত্যাদি। গুরুত্বর্পূণ ব্যয় ধরা হয়েছে মেয়র, কাউন্সলির, কর্মকর্তা র্কমচারীর বেতন ভাতা, জাতীয় দিবস উদযাপন, খেলাধূলা, সাংস্কৃিতক,ঋণ পরিশোধ, পৌর পানি শাখার ব্যয়, অবকাঠামো উন্নয়ন, ইউজিআইপি ৩, বিএমডিএফ প্রকল্পখাত সহ বিভিন্ন খাত।