লন্ডনে ঢাকা উৎসব উদযাপিত

292
জিবি নিউজ লন্ডন ||
ঢাকা এসোসিয়েশন ইউকের আয়োজনে গত ২৩শে জুন লন্ডনস্থ রেড ব্রিজ টাউন হলে ঢাকা উৎসব উদযাপিত হয়েছে। প্রকৃত ঢাকাবাসীদের সংগঠন ঢাকা এসোসিয়েশন ইউকের প্রায় ছয় শতাধিক সদস্যর উপস্থিতে উপভোগ্য অনুস্থানের মধ্য দিয়ে ঢাকাইয়া দের মিলন মেলায় পরিণত হয়। বিকেল তিনটায় আরম্ভ হয়ে রাত এগারোটা পর্যন্ত এই জমজমাট আয়োজন ছিল বিনোদনে ভরপুর।
সংগঠনের সভাপতি আসাদুজ্জামান বুল্বুলের সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক আমান উল্লার সার্বিক পরিচালনায় বিকেল তিনটার পুর্বই অনুষ্ঠানে লোকজন সমাগম হতে আরম্ভ করে। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআনে পাক হতে তেলোয়াত করেন আনিসুর রহমান। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন পালাক্রমে মুফতি নাফিজ, মারুফ গিয়াস বাপ্পি, এস এ সোহাগ এবং সিনথিয়া।
ছোট্ট সোনামণিদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা মধ্যদিয়ে ঢাকা উৎসবের মূল কার্যক্রম শুরু হয়। পঞ্চাশের অধিক বাচ্চাদের বয়স ভিত্তিক দুই ভাগে বিভক্ত করে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এই প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ নিয়ে বাচ্চাদের এবং তাদের অভিভাবকদের সারা ছিল চোখে পরবার মতন। দুই বিভাগ হতে তিনজন করে মোট ছয়জনকে তাদের সেরা চিত্রাঙ্কনের জন্য পুরস্কার প্রদান করা হয়। সেই সাথে সকল অংশ গ্রহণ কারিকে প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহনের জন্য মেডেল প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইস্ট হ্যাম হতে নির্বাচিত ব্রিটিশ পার্লামেনটের এম পি স্তিফেন টিমস। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইলফোড়ের এম পি মাইকেল জন গ্যাপস। আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাই কমিশনের প্রতিনিধি কাউন্সিলর পলিটিকাল দেওয়ান মাহমুদুল হক এবং লোকাল কাউন্সিলর সামিয়া আহমেদ।
 প্রধান অতিথি তার বক্তব্য এত ব্যাপক সংখ্যক ঢাকাইয়া দের উপস্থিতে দেখে উচ্ছসিত প্রশংসা করেন। সে তার ঢাকার অভিজ্ঞতা তুলে ধরে ঢাকার মানুষের অতিথি পরায়নতার বিশেষ প্রশংসা করেন। বিশেষ অতিথি তার বক্তব্য বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রামের সাথে তার ভুমিকা তুলে ধরেন। এমনকি বাংলাদেশে তার নৌকা ভ্রমণের সুখ সৃতির গল্প বলেন। সকল অতিথি ঢাকা এসোসিয়েশনের উত্তর উত্তর সাফল্য কামনা করেন। অতিথিদের ঢাকা এসোসিয়েশনের পক্ষ হতে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
 অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সর্ব জনাব সিরাজুল ইসলাম, আবুল বাশার, মোঃ হেলাল উদ্দিন, শাহাদাৎ হোসেন পিলু। অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সর্ব জনাব মোঃ মাতিয়ার রহমান, মোঃ সেলিম হোসেন, জাহিদ আলম, হাবিবুর রহমান খোকন, মোঃ রমজান আলী, তাসনোভা আহমেদ, ফারজানা আক্তার, কাজী কল্পনা, শামিম রেজা, আমান হিমেল, সোহেল আহমেদ, মোঃ সাইফুদ্দিন, মোঃ ওয়াসিম, মোঃ আবদুল্লা মোল্লা, এম এ চৌধুরী হাসান, হারুন উর রশিদ, লিয়াকত আলী, খাইরুল আলম শাহিন, জুয়েল রানা প্রমুখ।
 অনুষ্ঠানটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন মোঃ সেলিম হোসেনের মালিকানাধীন ইউনিক লার্নিং এডভাইজর। অন্যতম পৃষ্ঠপোষক ছিলেন জনাব জাহিদ আলমের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান একোয়াটিক। এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এই ঢাকা উৎসব আয়োজনে সহযোগিতা করেন। ঢাকা উৎসবকে কেন্দ্র করে মুফতি নাফিজের সম্পাদনায় একটি স্বরনিকা প্রকাশ করা হয়।
ঢাকা উৎসবের মূল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আরম্ভ হয় রাত সাতটায়। প্রথমে লন্ডনের প্রখ্যাত নাচের দল সোনিয়া ডান্স গ্রুপ তাদের নাচ পরিবেশন করে দর্শকদের মাতিয়ে তুলেন। লন্ডনের শিল্পি   কাজী কল্পনা,  হাসি রানি, সুমন শরীফ এর পর বাংলাদেশ হতে আগত হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল মাতিয়ে তুলেন তার সুরের মায়াজালে। বিশেষ আর্কশন হিসেবে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ হতে হাজির হন বাউল সম্রাট আরিফ দেওয়ান। বাংলাদেশ হতে আগত শিল্পিদের বিভিন্ন মুখি পরিবেশনা উপস্থিত দর্শকদের নস্টালজিক করে তুলে।
ঢাকা উৎসবে র‍্যাফেল ড্রর প্রথম পুরস্কার ছিল একটি পঞ্চাশ ইঞ্চি টেলিভিশন দ্বিতীয় পুরস্কার ছিল একটি ল্যাপটপ তৃতীয় পুরস্কার ওভেন সহ পাঁচটি পুরস্কারের ব্যবস্থা ছিল। র‍্যাফেল ড্রর পুরস্কার বিতরনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি হয় ঢাকা উৎসব ২০১৯ এর।