পাকিস্তান দলকে ইমরান খানের অভিনন্দন

147

হারলেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায়। এমন সমীকরণ নিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল আনপ্রেডিক্টেবল দলটি। সেই যাত্রায় উতরে গেছেন সরফরাজরা। কিউইদের ৬ উইকেটে হারিয়ে সেমিতে খেলার স্বপ্ন জিইয়ে রাখলেন তারা।

দাপুটে জয়ের নেপথ্য নায়ক বাবর আজম। অনবদ্য ব্যাটিংয়ে তুলে নিয়েছেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারে দশম সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত ব্যাটিং করে ১২৭ বলে ১০১ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন তিনি। তাকে যোগ্য সহযোদ্ধার সমর্থন দেন হারিস সোহেল। ৭৬ বলে ৬৮ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন তিনি।

তাতে আরামসে নিউজিল্যান্ডের দেয়া ২৩৮ রানের টার্গেট টপকে যায় পাকিস্তান। বল হাতে মাত্র ২৮ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়ে ব্ল্যাক ক্যাপসদের স্বল্প রানে বেঁধে রাখেন শাহীন আফ্রিদি। জেমস নিশামের লড়াকু অপরাজিত ৯৭ ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের ৬৪ রানের ইনিংসটি কার্যত কোনো কাজেই আসেনি।

দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার পর দুর্দান্ত কামব্যাকে সরফরাজদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ পাকিস্তান কিংবদন্তিরা। ব্যতিক্রম নন, দেশটির বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। দলের ভূয়সী প্রশংসা করে প্রাণঢালা অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে তিনি লিখেছেন, অসাধারণ কামব্যাকের জন্য আমাদের দলকে অভিনন্দন। অনন্য পারফরম্যান্সের জন্য বাবর, হারিস ও শাহীনকে বিশেষ অভিনন্দন।

এখন পর্যন্ত একটি বিশ্বকাপ জিতেছে পাকিস্তান। ১৯৯২ আসরে ইমরানের নেতৃত্ব গুণে শিরোপা ঘরে তোলে অনুনমেয় দলটি। সেই থেকে বিশ্ব ট্রফি অধরা রয়েছে নীল জার্সিধারীদের। তবে এবার সেই পথেই হাঁটছেন তারা। সেবার পাক ব্রিগেডের প্রথম সাত ম্যাচের ফলের সঙ্গে হুবহু মিল রয়েছে এবার।