চুনারুঘাটে নদীর বাঁধ ভেঙে ৮ গ্রাম প্লাবিত

141
gb

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার করাঙ্গী নদীর বাঁধ মেরামতের এক বছরের মধ্যেই ভেঙে ৭-৮টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে ওই এলাকার রোপা আউশ ও রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে।

স্কুলগ্রামী শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে। শুক্রবার ও শনিবারের প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের পানিতে শনিবার রাতের কোনো সময় কৃষ্ণপুর গ্রাম এলাকায় এ বাঁধ ভেঙে গ্রামে পানি প্রবেশ শুরু করে।

উপজেলার সাটিয়াজুরী ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামে করাঙ্গীর নদীর বাঁধটি ২০১৮ সালে প্রথম ভেঙে গেলে উপজেলা প্রশাসনের বরাদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদ এ বাঁধটি মেরামত করে। কিন্তু চলতি বছর অতিমাত্রায় বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের কারণে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় ছিল বাঁধটি। শুক্রবার ও শনিবারের বর্ষণ এবং পাহাড়ি ঢলে বাঁধটি ভেঙে যায়। ফলে রাত থেকেই নদীর পানি প্রবেশ শুরু করে গ্রামটিতে। একে একে ইউনিয়নের কুনাউডড়া, দারাগাঁও, কৃষ্ণপুর,কাজিরখিল, চান্দেরটিলা, সিরাজনগর, চিলামী, সাটিয়াজুরীসহ ৭-৮ গ্রাম প্লাবিত হয়।

বানের পানিতে তলিয়ে যায় এসব গ্রামের বোনা ও রোপা আউশ ফসল ও রাস্তাঘাট। পানিতে ডুবে গেছে এসব গ্রামের নানা ফসলাদি।

এদিকে এসব গ্রামের জনসাধারসহ ছাত্রছাত্রীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। কেউ কেউ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বিদ্যালয়ে আসা যাওয়া করছে। আবার অনেকেই যাচ্ছে না।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ বলেন, চলতি বছর অতিমাত্রায় বৃষ্টি এবং পাহাড়ি ঢলের কারণে বাঁধটি ভেঙে গেছে। বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। এ ছাড়া আপাতত বৃষ্টি না থাকায় পানি ধীরে ধীরে কমে যাচ্ছে।

এদিকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির লস্কর ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মঈন উদ্দিন ইকবাল বাঁধ মেরামতের বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন