লন্ডন বার্মিংহামে মৌলভীবাজারী মিলন মেলা অনুষ্ঠিত

239

জিবি নিউজ ডেস্ক।।

১৯৫২ সাল থেকে ২০১৯ সাল. দীর্ঘ ৬৭ বছর সময়. সুদীর্ঘ এই পরিক্রমায় দুনিয়ার কত যে পরিবর্তন হয়েছে তা বলতে গেলে বেহিসেব। এ সময়ের মধ্যে মৌলভীবাজারের মনুতে আর লন্ডনের থেমস নদীতে কত যে জল গড়িয়েছে তাও বেহিসেব।
অনেক কিছুরই হিসেব না রাখলেও ভাল কাজের হিসেব ও হদিস রাখতে মানুষ ভুল করেনা। তাই দেখা যায় ৬৭ বছর পর বার্মিংহামের মৌলভীবাজারীগন ঠিকই স্মরণ রেখেছেন তাদের পূর্বসূরীদের কল্যাণকামী কাজ সমূহকে। সুদীর্ঘ ৫/৬ যুগের ব্যবধানও পারেনি মানুষকে ভুলাতে। মুছাতে পারেনি তাদের মন থেকে পূর্বসূরী প্রিয়জনদের মানবকল্যাণী আন্দোলনের কথা।
১৯৫২ সাল, বাঙ্গালী জীবনে এক ঐতিহাসিক মাইল ফলক। এ সনেই সংগঠিত হয়েছিল মহান ভাষা আন্দোলন। ভাষার জন্য জীবন দিয়েছিলেন উর্দূভাষী পাকিস্তানীদের হাতে সালাম, বরকত, রফিক ও জব্বার। ঠিক এ বছরই বার্মিংহামের বাঙ্গালীগন প্রতিষ্ঠা করেন “বার্মিংহাম মৌলভীবাজার জনকল্যাণ কাউন্সিল”।

আতিকুর রহমান, মুহিবুর রহমান, ওয়াহিদ বাবুল, মুন্না, ম্যানচেষ্টারের বুরহান আহমেদ, লন্ডনের তাজ উদ্দিন, মিসবাহ কামাল, এম এ সালাম, আহবাব হোসেন খান বাপ্পি, রোমান আহমেদ, নজরুল খান, জুবায়ের সেলিম,আব্দুল মুকিত,গিয়াস আহমদ,আব্দুল মালিক,আব্দুর রব,আব্দুর রহমান মনা,জুনেদ আহমদ শিপু,শিহাব আহমদ,রুবেল আহমদ,আয়ারল্যান্ডের আহাদ চৌধুরী, স্কটল্যান্ডর নজরুল ইসলাম আবুল মিয়া লিটন প্রমূখ।
অনুষ্ঠানের বিশেষত্ব ছিলো- যারাই বক্তা ছিলেন, তারা সকলেই ছিলেন মৌলভীবাজারী। এমনকি এটিএন বাংলা ইউকের জয়নাল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্টিত মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টানেও ছিল মৌলভীবাজারী শিল্পীদের অংশগ্রহণ। যন্ত্রসঙ্গীতে মৌলভীবাজারের পাপ্পু আর সঙ্গীতে শিবলু রহমান, স¤্রাট, ময়না মিয়া, সৈয়দ সুহেলদের পাশাপাশি বার্মিংহামের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পি শেবুল ও লন্ডনের শতাব্দি কর সঙ্গীত এবং কভেন্ট্রির শিশু শিল্পি ফাতিহা, নাবিহা ও সামিহা পরিবেশন করেন। সবশেষে মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের কার্যকরী কমিটির সদস্যদের নিয়ে মৌলভীবাজারী মিলন মেলা উপলক্ষ্যে তৈরী বিশাল কেক কাটার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘঠে।

প্রসঙ্গত, ১৯৫২ সালে মিডল্যান্ডসে প্রতিষ্টিত মৌলভীবাজার জেলাবাসীর ঐতিহ্যবাহী সংগঠন মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের গৌরবোজ্জ্বল ৬৭ বছর পূর্তি উপলক্ষে বার্মিংহামে ‘মৌলভীবাজারী মিলন মেলা’ এর আয়োজন করা হয়। প্রায় ১২শ’ অতিথির উপস্থিতিতে এই প্রথমবারের মতো অনুষ্টিত হওয়া মৌলভীবাজারী এই মিলন মেলায় বার্মিংহামের কোন অনুষ্ঠানে বাঙালী কমিউনিটির অন্যতম বৃহৎ জনসমাগম- এমন মন্তব্য করেন উপস্থিত সবাই।আতিকুর রহমান, মুহিবুর রহমান, ওয়াহিদ বাবুল, মুন্না, ম্যানচেষ্টারের বুরহান আহমেদ, লন্ডনের তাজ উদ্দিন, মিসবাহ কামাল, এম এ সালাম, আহবাব হোসেন খান বাপ্পি, রোমান আহমেদ, নজরুল খান, জুবায়ের সেলিম,আব্দুল মুকিত,গিয়াস আহমদ,আব্দুল মালিক,আব্দুর রব,আব্দুর রহমান মনা,জুনেদ আহমদ শিপু,শিহাব আহমদ,রুবেল আহমদ,আয়ারল্যান্ডের আহাদ চৌধুরী, স্কটল্যান্ডর নজরুল ইসলাম আবুল মিয়া লিটন প্রমূখ।
অনুষ্ঠানের বিশেষত্ব ছিলো- যারাই বক্তা ছিলেন, তারা সকলেই ছিলেন মৌলভীবাজারী। এমনকি এটিএন বাংলা ইউকের জয়নাল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্টিত মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টানেও ছিল মৌলভীবাজারী শিল্পীদের অংশগ্রহণ। যন্ত্রসঙ্গীতে মৌলভীবাজারের পাপ্পু আর সঙ্গীতে শিবলু রহমান, স¤্রাট, ময়না মিয়া, সৈয়দ সুহেলদের পাশাপাশি বার্মিংহামের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পি শেবুল ও লন্ডনের শতাব্দি কর সঙ্গীত এবং কভেন্ট্রির শিশু শিল্পি ফাতিহা, নাবিহা ও সামিহা পরিবেশন করেন। সবশেষে মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের কার্যকরী কমিটির সদস্যদের নিয়ে মৌলভীবাজারী মিলন মেলা উপলক্ষ্যে তৈরী বিশাল কেক কাটার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘঠে।
প্রসঙ্গত, ১৯৫২ সালে মিডল্যান্ডসে প্রতিষ্টিত মৌলভীবাজার জেলাবাসীর ঐতিহ্যবাহী সংগঠন মৌলভীবাজার জেলা জনকল্যাণ কাউন্সিলের গৌরবোজ্জ্বল ৬৭ বছর পূর্তি উপলক্ষে বার্মিংহামে ‘মৌলভীবাজারী মিলন মেলা’ এর আয়োজন করা হয়। প্রায় ১২শ’ অতিথির উপস্থিতিতে এই প্রথমবারের মতো অনুষ্টিত হওয়া মৌলভীবাজারী এই মিলন মেলায় বার্মিংহামের কোন অনুষ্ঠানে বাঙালী কমিউনিটির অন্যতম বৃহৎ জনসমাগম- এমন মন্তব্য করেন উপস্থিত সবাই।

মন্তব্য
Loading...