ইতালিতে দুই শিক্ষার্থীর কৃতিত্ব

166
gb

ইতালিতে বাংলাদেশি দুই শিক্ষার্থীর কৃতিত্বে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

ব্যাচেলর অ্যান্ড বিজনেস অ্যাডমিনেস্ট্রেশনে এ বছর কৃতিত্বের সঙ্গে ইতালি প্রবাসী তানিয়া পাস করেন। একইসঙ্গে আব্দুর রহমান গালিব ডিপার্টমেন্ট অব ম্যানেজম্যান্ট অ্যান্ড ল’তে গ্রাজুয়েশন করলে সম্প্রতি রোমের নামকরা তরভেরগাতা ইউনিভার্সিটি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের হাতে সাটিফিকেট তুলে দেয়া হয়।

তানিয়া ইতালিতে মা বাবার সঙ্গে ২০০০ সালে পাড়ি জমান। তারপর ২০০৫ সালে পড়ালেখা শুরু করেন ইতালিয়ান স্কুলে। এরপর বাংলাদেশের এসএসসি ও এইচএসসি সমমানের পড়াশুনা ইতালিয়ান ভাষায় স্কুল এবং কলেজ শেষ করেন। পরে তানিয়া থেমে থাকেননি সাহস করে ভর্তি হন রোমের নাম করা বিশ্ববিদ্যালয় তরভেরগাতা। তবে এবার ইতালিয়ান ভাষায় নয় ইংরেজি ভার্সনে পড়াশোনা শুরু করেন তিনি।

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশি ছাত্রছাত্রী নেই বললেই চলে। সাফল্যের সঙ্গে ব্যাচেলর অ্যান্ড বিজনেস অ্যাডমিনেস্ট্রেশনে এ বছর কৃতিত্বের সঙ্গে তিনি পাস করেন এবং আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় তাকে সার্টিফিকেট প্রদান করে।

তানিয়া বলেন, ইতালিতে বেড়ে উঠা অনেকেরই ধারণা ইতালিতে ভাল কোন পড়ালেখা হয়না কেউ লন্ডন বা অন্য দেশে পড়তে যান তবে আমি প্রমান করেছি ইতালিতেও ভালমানের শিক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে। সব কিছুই নির্ভর করে নিজের ইচ্ছার ওপর। তানিয়া দেশে গিয়ে ব্যবসা করতে চান। ভবিষ্যতে নারী উন্নয়নে কাজ করতে আগ্রহী তিনি। তানিয়া জানান পড়ালেখার মধ্যে বিয়ে হয় বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের সঙ্গে। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক সন্তানের জননী।

একদিকে সংসার অন্য দিকে পড়ালেখা সব বাঁধা পেরিয়ে পিএইচডি করতে চান তানিয়া। ইতালিতে বেড়েউঠা নতুন প্রজন্ম তানিয়ার এই সাফল্যে খুশি তার পরিবারসহ প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তার গ্রামের বাড়ী বি, বাড়িয়া জেলায়। তানিয়ার সঙ্গে একই দিনে সার্টিফিকেট গ্রহন করেন বাংলাদেশ থেকে স্কলারশীপ নিয়ে আসা আব্দুর রহমান গালিব। ডিপার্টমেন্ট অব ম্যানেজম্যান্ট অ্যান্ড ল’তে গ্রাজুয়েশন করেন তিনি। কানাডা থেকে পিএইচডি করে দেশে গিয়ে শিক্ষকতা করে চান গালিব। গাজীপুর জেলার কাশীমপুরে গালিবের দেশের বাড়ি।

তিনি দেশ থেকে স্কলারশীপ নিয়ে ইতালিতে পাড়ি জমান চার বছর আগে। তাদের ভাল ফলাফলের পাশাপাশি আচার-আচারণের প্রশংসা করেছেন শিক্ষকরা। নিয়মিত ক্লাসকরা, ভদ্রতায় তরভেরগাতা ইউনিভার্সিটিতে অধ্যায়নরত অন্যদেশের ছাত্রছাত্রীদের চেয়ে বাংলাদেশি ছাত্র-ছাত্রীদের রয়েছে আলাদা সুনাম। আগামীদিনে বাংলাদেশি দুইকৃতি শিক্ষার্থী, সুনাম বয়ে আনবে দেশের জন্য এমন প্রত্যাশা করছেন রোমের প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন