বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকের সাধারণ সম্পাদক মরহুম মাওলানা আব্দুল হাই খান স্মরণে দোয়া মাহফিল

71
গত ৩ মার্চ ২০১৯, ইস্ট লন্ডনস্থ মুসলিম সেন্টার হলে সর্বদলীয় উলামা সংগঠন বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকের সাধারণ সম্পাদক মরহুম মাওলানা আব্দুল হাই খান স্মরণে এক দুয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকের সভাপতি মাওলানা একেএম সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শাহ মিজানুল হকের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন, শারিয়া কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা আবু সাঈদ, কান্সিল অফ মস্কের চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা শামছুল হক, আলহুদা মসজিদের চেয়ারম্যান, ইমাম ও খতিব অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল কাদির সালেহ, ইস্ট লন্ডন মসজিদের ইমাম ও খতিব শায়েখ আব্দুল কাইয়ুম, মাইল এন্ড মসজিদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জমশেদ আলী, বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকের সাবেক সভাপতি মাওলানা একে এম মাওদুদ হাসান, মুফতী শাহ সদরুদ্দীন, আল আকসা মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা সাদিকুররাহমান, বিকল্যান মসজিদের সাবেক ইমাম ও খতিব মাওলানা জিল্লুল রাহমান চৌধুরী, বিশিষ্ট টিভি আলোচক শায়েখ আবদুর রাহমান মাদানী, মাজাহিরুল উলুম মাদরাসার প্রেন্সিপাল মাওলানা ইমদাদুর রাহমান মাদানী, মাওলানা রেজাউল করীম, মাওলানা আবুল হোসাইন খান, বিশিষ্ট কমিনিটি বক্তিত্ব কেএম আবু তাহির চৌধুরী, বিশিষ্ট কান্সিলার ব্যারিষ্টার নজির আহমদ, মাওলানা নুরুল ইসলাম, কমিনিটি ব্যাক্তিত্ব আলহাজ্ব ড. আব্দুল আজিজ, টিসার ইসোসিয়েশনের মনজুরে রেজা চৌধুরী, জনাব মখলিছুর রাহমান চোধুরী, জনাব আয়ুব হোসেন খান, মাওলানা রফিক আহমদ রফিক, ডাক্তার শামছুদ্দীন,  কুরতুবা ইন্সটিটিউট এর শিক্ষক মাওলানা দেলওয়ার হুসাইন, একেএম শাহজাহান, এ আই টি সভাপতি মাওলানা আবুল হাসনাত চৌধুরী, মাওলানা মুমিনুল ইসলাম ফারুকী প্রমুখ।
বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল হাই খান, দীর্ঘ দিন ব্রেইন ক্যান্সারে অসুস্থ থেকে গত ১লা মার্চ ২০১৯, শুক্রবার ভুর সাড়ে পাঁচ ঘটিকার সময় নিউহ্যাম জেনারেল হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন, ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।
মরহুমের উক্ত স্মরণ সভায় আলোচকগণ তাঁর শোক সন্তপ্ত পরিবার ও আত্মীয় স্বজনের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করে মহান আল্লাহর নিকট জান্নাতুল ফেরদাউসের উচ্চো মকাম কামনা করেন।
বক্তারা মরহুমের ব্যক্তিগত পরিচয় প্রকাশ করে বলেন, তাঁর দেশের বাড়ী ছিল, বড়লেখা উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের আতুয়া’য় গ্রাম। তাঁর বাবা ছিলেন, মাওলানা খলিলুর রহমান তিনি ছিলেন একজন প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন। এলাকার লোকজন তাঁর পিতা কে মোহাজির-এ-হিন্দস্থানী হিসেবে সম্মোধন করতেন। শাহবাজপুর ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন মরহুম মাওলানা আব্দুল হাই খান।
বক্তারা মরহুমের কর্ম জীবন আলোচনা করতে গিয়ে বলেন, মাওলানা আব্দুল হাই খান লন্ডনের বিভিন্ন মসজিদে ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বিভিন্ন সেন্টারে ইভনিং মাদ্রাসায় শিক্ষকতাও করেছেন। পরে নিজেই একটি ইভনিং মক্তব চালু করেন তাঁর নাম দিলেন কুরতুবা ইন্সটিটিউট। খুব কম সময়ের মধ্যেই এটি একটি সফল প্রতিষ্ঠানে রূপ নেয়। পূর্ব লন্ডনে একাধিক শাখা চালু করেন তিনি কুরতুবা ইন্সটিটিউট- এর নামে।
মরহুম আব্দুল হাই খান কে স্মরণ করে অশ্রুশীক্ত নয়নে আলোচকগণ বলেন, তিনি একজন সুপরিচিত বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন ছিলেন, তিনি ভালো শিক্ষক ও সংগঠক ছিলেন, তাঁর মাঝে ছিল স্পষ্টবাদী ও দৃঢ়তা, কমিনিটি কে ঐক্যবদ্ধ রাখার তাঁর ছিল অন্যতম প্রচেষ্টা।
মন্তব্য
Loading...