শেয়ারবাজারে ১৬ মাসের সর্বোচ্চ লেনদেন

125

শেয়ারবাজারে তারল্যপ্রবাহ বাড়ছে। রোববার দেশের দুই শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) মিলে ১ হাজার ২৫২ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছে।

এর মধ্যে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১৯৮ কোটি টাকা এবং সিএসইতে ৫৩ কোটি টাকা। ডিএসইর এ লেনদেন ১৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে ২০১৭ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর ডিএসইতে ১ হাজার ৫০৮ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছিল। তবে উভয় শেয়ারবাজারে রোববার মূল্যসূচক ও বাজারমূলধন কমেছে। আর খাতভিত্তিক বিবেচনায় রোববার বীমার শেয়ারের দাম ছিল ঊর্ধ্বমুখী। পাশাপাশি এ খাতের শেয়ার লেনদেনও বেড়েছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ডিএসইতে এ দিন ৩৪৭টি কোম্পানির ৩৭ কোটি ৯২ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ১ হাজার ১৯৮ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৬২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের, কমেছে ১৫৯টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। ডিএসইর ব্রডসূচক আগের দিনের চেয়ে ১০ দশমিক ৫৬ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৯৩৯ দশমিক ৪৫ পয়েন্টে নেমে এসেছে। ডিএসই-৩০ মূল্যসূচক ৫ দশমিক ৪৮ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৪৩ দশমিক ৫২ পয়েন্টে নেমে এসেছে। ডিএসই শরিয়াহ সূচক দশমিক ৬৫ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩২২ দশমিক ২৭ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে কমে ৪ লাখ ১৯ হাজার কোটি টাকায় নেমে এসেছে। খাতভিত্তিক বিবেচনায় রোববার এগিয়ে ছিল বীমা খাত। ডিএসইতে তালিকাভুক্ত এ খাতের ৪৭টি কোম্পানির মধ্যে রোববার ৩২টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় নির্বাচনের পর থেকেই দেশের শেয়ারবাজার চাঙা। দু-একদিন ছাড়া প্রায় প্রতিদিনই বাড়ছে সূচক। ভোটের পর দুই বাজারেই লেনদেনেও বেশ গতি এসেছে। বেশির ভাগ দিন ডিএসইতে হাজার কোটি টাকার ওপরে লেনদেন হয়েছে।

সিএসই : চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে রোববার ২৮০টি প্রতিষ্ঠানের ২ কোটি ৯ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ৫৩ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের, কমেছে ১১১টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম। সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ৫০ পয়েন্ট কমে ১৮ হাজার ২১৫ পয়েন্টে নেমে এসেছে। সিএসই ৩০ মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ২০ পয়েন্ট কমে ১৫ হাজার ৭৫৪ পয়েন্টে নেমে এসেছে। সিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে কমে ৩ লাখ ৪৮ হাজার কোটি টাকায় নেমে এসেছে।

শীর্ষ ১০ কোম্পানি : ডিএসইতে রোববার যেসব কোম্পানির শেয়ার বেশি লেনদেন হয়েছে সেগুলো হল- প্রিমিয়ার ব্যাংক, ইস্টার্ন হাউজিং, ইউনাইটেড পাওয়ার, ইউনাইটেড ফাইন্যান্স, ঢাকা ব্যাংক, ওয়েস্টার্ন মেরিন, লংকা বাংলা ফাইন্যান্স, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন এবং আইএফআইসি ব্যাংক।

রোববার ডিএসইতে যেসব কোম্পানির শেয়ারের দাম বেশি বেড়েছে সেগুলো হল- ইস্টার্ন হাউজিং, কেডিএস এক্সেসরিজ, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স, স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স এবং বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন।

অন্যদিকে যেসব কোম্পানির শেয়ারের দাম বেশি কমেছে সেগুলো হল- এমারেল্ড অয়েল, বিডি অটোকারস, কে অ্যান্ড কিউ, জুট স্পিনার্স, জেএমআই সিরিঞ্জ, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকস, ইউনাইটেড ফাইন্যান্স, নর্দান জুট, মেঘনা পেট এবং সোনালি আঁশ।

মন্তব্য
Loading...