শতবর্ষ পেরিয়ে যুক্তরাজ্যের বাংলা সংবাদপত্রঃ প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি 

1,486
gb

 গত সোমবার ২ অক্টোবর পূর্ব লন্ডনের এলএমসি সেমিনার হলে লন্ডন থেকে প্রকাশিত অনলাইন পোর্টাল লন্ডনবিডিনিউজ২৪.কম এর উদ্যাগে শতবর্ষ পেরিয়ে যুক্তরাজ্যের বাংলা সংবাদপত্র; প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি শীর্ষক এক বিশেষ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। লন্ডনবিডিনিউজ২৪এর চেয়ারম্যান ও প্রধান সম্পাদক আব্দুল বাছিত বাদশার সভাপতিত্বে ও বিডিনিউজের স্পেশাল রিপোর্টার শিহাবুজ্জামান কামাল ও নিউজ এডিটর আব্দুল কাদির চৌধুরী মুরাদের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারের শুরুতে কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মৌলানা সফিক উদ্দিন, স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও লন্ডনবিডিনিউজের উপদেষ্টা সম্পাদক কে এম আবুতাহের চৌধুরী। সেমিনারে মুল প্রবন্ধপাঠ করেন বিডিনিউজ২৪.কম এর ম্যানেজিং এডিটর রোমান বখত চৌধুরী।

সেমিনারে যুক্তরাজ্যের বাংলাদেশী কমিউনিটি থেকে স্ব স্ব ক্ষেত্রে সফল সব ব্যক্তিদের ব্যাপক সমাবেশ ঘটে। সেমিনারে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ডঃ হাসনাত এম হোসেইন এমবিই, বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির সাবেক উপদেষ্টা ও বাংলাদেশওয়ার্ল্ডওয়াইড.কম এর এডিটর মোখলেসুর রহমান চৌধুরী, ট্রাইব্যুনাল জাজ নজরুল খছরু, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ও সাপ্তাহিক জনমত পত্রিকার প্রধান সম্পাদক সৈয়দ নাহাস পাশা, সাপ্তাহিক জনমতের সম্পাদক নবাব উদ্দিন, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জুবায়ের, সহ সভাপতি মাহবুবুরহমান, টাওয়ার হেমলেটস কাউন্সিলের সাবেক ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলার অহিদ আহমদ, কমিউনিটি নেতা ও লেখক শাহগির বখত ফারুক, গ্রেটার সিলেট কাউন্সিলের সাবেক সভাপতি ব্যারিস্টার আতাউর রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের সাবেক প্রধান ও চেয়ারম্যান সুদীপ চক্রবর্তী, সাপ্তাহিক দেশ পত্রিকার সম্পাদক তাইসির মাহমুদ, সাপ্তাহিক সুরমা সম্পাদক আহমদ ময়েজ, দর্পণ সম্পাদক রহমত আলী।

সেমিনারে বিপুল সংখ্যক সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী ও কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন। সময়ের অভাবে যাদের উপস্থিত অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে আলোচনায় সুযোগ দিতে না পারায় লন্ডনবিডিনিউজ২৪.কম এর পক্ষ থেকে সবার কাছে আব্দুল বাছিত বাদশা বিশেষভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। ভবিষ্যতে কমিউনিটির এরকম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আরও সময় হাতে রেখে অনুষ্ঠান আয়োজন করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, গ্রেটার সিলেট কাউন্সিলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা আছহাব বেগ, লন্ডন মেইলের সম্পাদক ডঃ এম এ আজিজ, সলিসিটর মাসুদ চৌধুরী, কালাম সলিসিটরের প্রধান এম এ কালাম, এনটিভির জনপ্রিয় উপস্থাপক আতাউল্লাহ ফারুক, কাউন্সিলর শাহ আলম, ব্যারিস্টার মোঃ শহিদ, সাপ্তাহিক ইউরো বাংলার সাবেক সম্পাদক মোহাম্মাদ এম এ জাহেদি ক্যারল, হাজি রইছ আলি, সাপ্তাহিক সুরমার নিউজ এডিটর আব্দুল কাইউম, সাংবাদিক মতিউর চৌধুরী, বাংলাদেশী টিচার্স এসোসিয়েশন এর সভাপতি আবু হুসাইন, মুসলীম হেল্প ইউকের আব্দুছ ছুবাহান, এডামস প্রপার্টি কনসালটেন্ট এর খজিরুল ইসলাম, মোহাম্মেদ সাফি(সাঞ্জু), বিবিসিসির প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সম্পাদক এ কে আজাদ, দ্যা সানরাইজটুডে এর সম্পাদক ও টিভি উপস্থাপক এনাম চৌধুরী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এডঃ তাহির রায়হান চৌধুরী পাবেল, মোঃ নিজাম উদ্দিন আহমেদ, এডঃ খলিলুর রহমান, জসিম উদ্দিন আহমেদ, সাপ্তাহিক দেশ পত্রিকার নিউজ এডিটর মোঃ রাহিম, বিশ্বনাথ প্রবাসী ট্রাষ্টের আখলাকুর রহমান, এনটিভি ইউরোপের কয়েছ আহমেদ রুহেল, নুরুল ইসলাম, সাপ্তাহিক মুসলিম এর আব্দুস সোবহান, এম রফিক আহমদ, আলহাজ আলাউদ্দিন আহমদ, মোঃ কলা মিয়া, মতিউর রহমান চৌধুরী, এস এম আলাউদ্দিন আহমেদ, ওয়ার্ল্ড বাংলা.কমের সম্পাদক মাহমুদ আব্দুল মুমিন চৌধুরী, নজরুল ইসলাম, ক্রিকেট সংবাদ.কম এর সম্পাদক মোহাম্মাদ শরিফুজ্জামান, কবি মোহাম্মদ জাবেদ আলি, মোঃ নুর বক্স, আসুয়াব আহমেদ, ফারুক মিয়া, ইরশাদুর রহমান প্রমুখ।

শতবর্ষ পেরিয়ে যুক্তরাজ্যে বাংলা সংবাদ পত্রের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি শীর্ষক সেমিনারে বলা হয়, ১৯১৬ সালে ১ নভেম্বর প্রথম পাক্ষিক সত্য বানীপ্রথম প্রকাশিত হয়। গত বছর বিলেতের বুকে বাংলা মিডিয়ার শত বছর পূর্ণ হয়। সেই দীর্ঘ পথ পেরিয়ে তারই ধারাবাহিকতায় বিলেতে বাংলা মিডিয়া এ পর্যায়ে এসে পৌছিয়েছে। বিলেতে এযাবৎ নিয়মিত ও অনিয়মিত প্রকাশিত সাপ্তাহিক, পাক্ষিক বহু পত্রিকা, ম্যাগাজিন প্রকাশিত হচ্ছে। বাংলা পত্রপত্রিকার পাশাপাশি রেডিও ও ৬/৭টি বাংলা টেলিভিশন এবং বেশ কয়েকটি অনলাইন পত্রিকা সনামের সাথে পরিচালিত হয়ে আসছে।

সেমিনারের বিষয়ের উপর আলোকপাত করতে গিয়ে আলোচকবৃন্দ সৎ ও আস্থার সাংবাদিকতা চর্চার উপর বিশেষ গুরুত্ব দেন। কারো কারো মতে নির্ভীক সাংবাদিকতা বাংলাদেশে সম্ভবপর না হলেও এই বিলেতে সম্ভব। কারন নির্ভীক ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা না থাকলে দেশ ও দশের উন্নয়ন হয় না। এদেশে থেকে আমাদের ব্যক্তিগত চাওয়া পাওয়ার তো আর কিছু নেই। সংবাদপত্রের ১০০ বছরের ইতিহাসে অনেক কমিউনিটি বিরোধী সংবাদপত্রও চালু হয়েছে এবং যা এখনো বিদ্যমান। এদেরকে চিহ্নিত করতে হবে। সেমিনারে আলোচনায় কারো কারো মতে, কমিউনিটিতে বাংলা শিক্ষার বিশেষ ব্যবস্থা করতে হবে। প্রয়োজনে বাংলাদেশ সরকারের সাহায্য নেয়া উচিৎ। আর এদেশে ও লেভেল ও এ লেভেল এ বাড়তি ভাষা শিক্ষা হিসেবে বাংলা চালু রাখার জন্যে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানানোর পরামর্শ দেন। বাংলা ভাষা শিক্ষা ও বাংলা পত্রিকার পাঠক বৃদ্ধি করার সাথে সরাসরি সম্পর্কিত বলেও অনেকে মত দেন।

এছাড়া সেমিনারে পঠিত মূল প্রবন্ধের বিভিন্ন ত্রুটি বিচ্যুতি কিছু ধরা পড়েছে তা শুধরে নেয়ার পরামর্শ দেন উপস্থিত আলোচকবৃন্দ। এ বিষয়ে প্রবন্ধের লেখক লন্ডনবিডিনিউজ২৪.কম এর ম্যানেজিং এডিটর রোমান বখত চৌধুরী বলেন, দেশের বাইরে বাংলা সংবাদপত্র ১০০ বছর পেরিয়েছে, এটি কমিউনিটির একটি বিরাট সাফল্য। বিষয়টিকে আরও সঠিক তথ্যপূর্ণ করতে বিশেষভাবে কাজ করে যাবেন যাতে সবার গ্রহণযোগ্য একটি প্রবন্ধ দাড় করানো যায়। ভবিষ্যতে উক্ত বিষয়ের উপর আরেকটি সেমিনার বা আলোচনা সভা করারও তাগিদ অনুভব করেছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

ইতোমধ্যে লন্ডন থেকে প্রকাশিত অনলাইন পত্রিকা লন্ডনবিডিনিউজ২৪পাঠক মহলে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে তার এ অগ্রযাত্রা যেন অব্যাহত থাকে সেই প্রত্যাশা সবাই কামনা করেন।

পরিশেষে সেমিনার অনুষ্ঠানের সভাপতি ও লন্ডন বিডি নিউজ২৪.কম এর চেয়ারম্যান ও প্রধান সম্পাদক আব্দুল বাছিত বাদশা সমাপনি বক্তব্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানেন। অনুষ্ঠান শেষে বিশেষ খাবার পরিবেশন করা হয় উপস্থিত অতিথিদের মধ্যে।