গুলিতে নিহত বাংলাদেশীর লাশ ফেরত দিলেন বিএসএফ

69
gb

মহিনুল ইসলাম সুজন,ক্রাইম রিপোর্টার নীলফামারী ||

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের নিকটতম ভারতীয় ভুজারীপাড়া সীমান্তে সে দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে নিহত দুই সন্তানের জনক বাংলাদেশী খলিল উর রহমান খলিল (৩৫)এর লাশ ফেরত দিয়েছে বিএসএফ। বুধবার(১৬ই জানুয়ারী) রাত ৮টা ৪০ মিনিটে বাংলাদেশ ভারতের ৭৯৩ নম্বর সীমান্তের প্রধান পিলার এলাকায় পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে নিহত খলিলের লাশ ফেরত দেয়া হয়। নিহত খলিল উপজেলার পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের খালপাড়া গ্রামের মৃত, মকছেদ আলীর ছেলে।
খলিলের লাশ ফেরত দেয়ার সময় ভারতের কোচবিহার জেলার হলদিবাড়ি থানার ওসি প্রবীন প্রধান ও বাংলাদেশের ডিমলা থানার ওসি মফিজ উদ্দিন শেখ, কোচবিহার ১৪৩ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের ভুজারীপাড়া ক্যাম্পের কমান্ডার আশিষ সিং, রংপুর-৫১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের বালাপাড়া কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার মোবারক আলী, ঠাকুরগঞ্জ বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার নাজির উদ্দিন ও পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল হক সরকার উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে গত মঙ্গলবার ভোর রাতে বাংলাদেশের ডিমলা উপজেলার পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের ঠাকুরগঞ্জ সংলগ্ন ভারতের ভুজারীপাড়া সীমান্তের ৭৯১ নম্বর পিলারের ভিতরে খলিল অবৈধ ভাবে প্রবেশ করলে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালালে সে গুলি বৃদ্দ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন । পরে খলিলের লাশ নিয়ে যান ভারতীয় বিএসএফ সদস্যরা ।
নিহত খলিল গরু পাচারে রাখালের কাজ করতেন বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে।
ঘটনার দিন দুপুরে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীদের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হলে বিএসএফ নিহত খলিলের লাশ ময়না তদন্ত শেষে ফেরত দেয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন।
ডিমলা থানার ওসি মফিজ উদ্দিন শেখ জানান, ভারতীয় হলদিবাড়ি থানায় এই নিহতের ঘটনায় একটি ইউডি মামলা করে লাশের ময়না তদন্ত করেছেন তারা। আমরা বৃহস্পতিবার(১৭ই জানুয়ারি) জেলা মর্গে নিহত খলিলের লাশের পুনরায় ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করব।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More