গোপালগঞ্জে দোকানঘর-মালিক ও তার সহোদরকে মারধর করে হাসপাতালে ভর্তি

161
gb

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপার বাজারে একটি দোকানঘর দখলকে কেন্দ্র করে হামলায় দোকানঘর-মালিক ও তার সহোদরকে মারধর করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে প্রতিপক্ষরা। আহতরা হল, সাতপাড় গ্রামের মৃত্যুজয় বিশ্বাসের ছেলে মৃণাল কান্তি বিশ্বাস (৫৪) ও তার ছোট ভাই শেখর চন্দ্র বিশ্বাস (৪৮)। গোপালগঞ্জ আড়াই’শ বেড জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আহত মৃণাল কান্তি বিশ্বাস জানান, বছর দশেক আগে তিনি সাতপার বাজারে তার একটি দোকানঘর ভাড়া দেন। ভাড়াটিয়া একটি মামলায় জড়িয়ে দেশান্তর হয়। সেই থেকে দোকানঘরটি বন্ধ রয়েছে এবং দোকানের পিছনের অংশে দীর্ঘদিন ধরে নেশা ও আড্ডার স্থলে পরিণত হয়। এরই একপর্যায়ে সোমবার রাতের অন্ধকারে স্থানীয় স্বপন বিশ্বাস, তার স্ত্রী আরতী বিশ্বাস ও তাদের ছেলে সুমন বিশ্বাস ওই দোকানঘরের তালা ভেঙ্গে দখলে যায় এবং মঙ্গলবার ভোরে সেখানে তারা রুটি বেচাকেনা শুরু করে। সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে তাদেরকে ওই ঘর ছেড়ে দিতে বললে স্বপনের ছেলে সুমন তাকে বেদম মারধর করে এবং মৃণাল বিশ্বাসের ডান চোখে গুরুতর আহত হয়। এ সময় তার ছোট ভাই শেখর চন্দ্র বিশ্বাস ঠেকাতে এলে স্বপন, তার স্ত্রী ও ছেলে সবাই মিলে তাকেও বেদম মারপিট করে। এতে শেখর মাথায় ও শরীরে গুরুতর আহত হন। পরে এলাকার লোকজন তাদের দু’ভাইকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। পরে মৃণাল বিশ্বাসের বাবা মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস গিয়ে বৌলতলী ফাঁড়ি পুলিশে একটি লিখিত অভিযোগ করে। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বৌলতলী পুলিশ ফাঁড়ির আইসি সাজিদুর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More