সাপাহারে এক পরিবারের মিথ্যা অভিযোগ থেকে বাঁচতে গ্রামবাসীর সংবাদ সম্মেলন

402
gb

গোলাপ খন্দকার সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি ||

নওগাঁর সাপাহারে একটি পরিবারের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে তার বিভিন্নধরনের অপকর্মের হাত থেকে মুক্তি পেতে গ্রামবাসী সংবাদ সম্মেলন করেছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় উপজেলা তিলনা ধন্টিপাড়া গ্রামে জনাকীর্ণ পরিবেশে ওই সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়।
ওই গ্রামের মুরুব্বী মোঃ মোজাহারুল হক গ্রামবাসীর পক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তার লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করে বলেন যে, ওই গ্রামের মোঃ ওসমান গনির পুত্র মিন্টু দির্ঘ দিন ধরে নিজকে একজন বিশিষ্ট কবিরাজ জাহির করে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন গ্রামের নিরীহ লোকজনদের ঠকিয়ে অর্থ আতœসাত করে চলায় লোকজন তার নামে গ্রামের মুরুব্বিদের নিকট অভিযোগ দাখিল করেন। এমন কি সম্প্রতি পাশ্ববর্তী পোরশা উপজেলার গনগতিপুর গ্রামে মেয়েলী সংক্রান্ত বিষয়ে লোকজন তাকে ধরে বেধে রাখলে তিলনা ইউপি সদস্য পলাশ মেম্বার তাকে সেখান থেকে মুচলেকা দিয়ে মুক্ত করে ফিরিয়ে আনেন। অতি সম্প্রতি ওই প্রতারক মিন্টু একই গ্রামের দিনমজুর নজরুল ইসলামের এক মেয়েকে বিবাহের পূর্ব মহুর্তে মোবাইলে উত্যক্ত করে বিভিন্ন প্রকার কু-প্রস্তাব দেওয়ায় বিষয়টি নিয়ে গ্রামে এক দরবার বসে। উক্ত দরবারে মিন্টু উপস্থিত না হয়ে গ্রামবাসীকে বিভিন্ন ভাবে শাশিয়ে দেয়। নিরুপায় হয়ে গ্রামবাসীর পরামর্শে দিনমজুর নজরুল বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করলে পুলিশ তাকে ধরে জেল হাজতে পাঠায়। এর পর ওই প্রতারক ও লম্পট মিন্টু গ্রামবাসীদের উপর রাগান্বিত হয়ে তাদেরকে দেখে নেবে বলে তাকে ও তার পরিবারকে গ্রামবাসী বিচারের নামে এক ঘরে করে রেখেছে এক মিথ্যা ধুয়া তুলে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি অভিযোগপত্র দাখিল করেন। নির্বাহী অফিসার অভিযোগটি নিষ্পত্তির জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের উপর দায়িত্ব দিলে ইউপি চেয়ারম্যান মোসলেম উদ্দীন স্থানীয় ভাবে কিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য উভয় পক্ষদ্বয়কে ডেকে নিয়ে তার ইউপি কার্যালয়ে বসেন এবং বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে মিন্টু পরিবারের বক্তব্যে তাদেরকে এক ঘরে করে রাখার কোন প্রমান বা নিদর্শন না পাওয়ায় গ্রামবাসীদের সাথে তাদের পরিবারটিকে মিলিয়ে দেয়ার উদ্যেগ নিলে মিন্টুর পরিবারটি চেয়ারম্যানের এই উদ্যোগকে উপেক্ষা করে সেখান থেকে চলে আসে। বর্তমানে মিন্টুর ওই পরিবারটি গ্রামবাসীদের বেকায়দায় ফেলার জন্য বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দপ্তরে নানা হয়রানীমুলক অভিযোগ করে আসছে। শেষ পর্যন্ত গ্রামবাসী কোন উপায়ান্ত না পেয়ে সকলে একত্র হয়ে ওই গ্রামের মিন্টু ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে সঠিক তদন্ত স্বাপেক্ষে সঠিক ব্যাবস্থা গ্রহন করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা ও তাদের অত্যাচারের হাত থেকে মুক্তি ও নিষ্কৃতি পেতে গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ বিষয়ে প্রতারক মিন্টুর সাথে তার বাড়িতে কথা বলতে গেলে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেননি।