গণমাধ্যমের প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অব্যাহত বিদ্বেষমূলক আচরণের নিন্দা জানিয়েছেন জাতিসংঘ

280
gb

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক //

গণমাধ্যমের প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অব্যাহত বিদ্বেষমূলক আচরণের নিন্দা জানিয়েছেন জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, গণমাধ্যমের ভূমিকাকে হেয় করছেন এবং গণমাধ্যমকে শত্রু হিসেবে ঘোষণা করেছেন ট্রাম্প।

বাংলাদেশসহ বিশ্বব্যাপী যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতরা যখন গণমাধ্যমের স্বাধীনতার পক্ষে জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন, তখন খোদ যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষমতার শীর্ষে থাকা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের গণমাধ্যমবিরোধী ভূমিকা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা উদ্বেগ জানালেন।

জেনেভা ও ওয়াশিংটন থেকে বৃহস্পতিবার রাতে জাতিসংঘ মানবাধিকার দপ্তর থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়, জাতিসংঘ ও আন্তঃআমেরিকান মানবাধিকার বিশেষজ্ঞরা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তার প্রশাসনকে তাদের জবাবদিহিতা, স্বচ্ছতা ও সততা নিশ্চিত করতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অব্যাহতভাবে অবমূল্যায়ন করার চর্চা ত্যাগ করার আহ্বান জানান।

মত প্রকাশের স্বাধীনতা বিষয়ক জাতিসংঘের স্পেশাল র‌্যাপোর্টিয়ার (বিশেষ দূত) ডেভিড কেই ও মানবাধিকার বিষয়ক আন্তঃআমেরিকান কমিশনের স্পেশাল র‌্যাপোর্টিয়ার অ্যাডিসন লানজা বলেন, গণমাধ্যমকে ট্রাম্পের আক্রমণ অত্যন্ত কৌশলি। তার প্রশাসন সম্পর্কে সন্দেহ ও লেখালেখিকে হেয় করাই এর লক্ষ্য।

বিবৃতিতে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গণমাধ্যমকে যুক্তরাষ্ট্রের শত্রু, মিথ্যা সংবাদদাতা, অসৎ ও গণতন্ত্রের শত্রু হিসেবে অভিহিত করেছেন।

ট্রাম্প প্রশাসনের গণমাধ্যমবিরোধী বক্তব্যে গভীর উদ্বেগ জানিয়ে বিশেষ দূতরা বলেন, এটি গণমাধ্যমের স্বাধীনতার প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সম্মান জানানোর বাধ্যবাধকতার প্রতিবন্ধক। ক্ষমতার সম্ভাব্য অপব্যবহার, অপকর্ম, অপচয় নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশে বাধা দিতেই এ প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গণমাধ্যমকে শত্রু হিসেবে অভিহিত করে অপছন্দের প্রশ্নগুলো এড়িয়ে চলছেন।