হাকালুকি’র বাতান থেকে চুরি হওয়া ১৫ মহিষ গোলাপগঞ্জ থেকে উদ্ধার

345
gb

জিবিনিউজ ডেস্ক::
মৌলভীবাজারের হাকালুকি হাওরের বাতান থেকে চুরি হওয়া ১৫ মহিষকে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলা থেকে উদ্ধার করেছে কুলাউড়া থানা পুলিশ। এঘটনায় বাতানের মালিক মর্তুজ আলী বাদী হয়ে ১৩ জনকে আসামী করে ৫ এপ্রিল কুলাউড়া থানায় মামলা দায়ের করেন (মামলা নং-১০)।
আসামীরা হলেন, (১) মোঃ বাতির আলী (২) সুমন মিয়া (৩) চাঁন মিয়া (৪) রেজান মিয়া (৫) লিলু মিয়া (৬) জিয়া মিয়া (৭) পংকি মিয়া ও (৮) ফই উদ্দিনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১৫ জন।
মামলার এজহার থেকে জানা যায়, মামলার বাদী দীর্ঘ দিন ধরে হাকালুকি হাওরের নাগুয়া বিলের পূর্ব পাশে অস্থায়ী গরু-মহিষের বাতান পরিচালনা করে আসছেন। মর্তুজ মিয়ার বাতানের দক্ষিণ পাশে মামলার ১নং আসামী মোঃ বাতির আলীর বাতানা থাকায় গরু-মহিষ চড়ানো নিয়ে কিছু দিন পূর্বে উভয়ের মধ্যে মনো মালিন্য হয়। এর জের ধরে আসামীগণ গত ৪ এপ্রিল দুপুরে মর্তুজ মিয়ার কর্মচারীদের অগোচরে ১৫টি মহিষ চুরি করে জুড়ী উপজেলার দিকে নিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুজির পর মহিষের সন্ধ্যান না পাওয়ায় পরের দিন ৫ এপ্রিল কুলাউড়া থানায় মামলা দায়ের করেন মর্তুজ মিয়া। মামলার ভিত্তিতে কুলাউড়া থানা পুলিশের বিশেষ একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার হাকালুকি হাওর তীরবর্তী টেকুমা বিলের দক্ষিণ পাশ থেকে ৬ এপ্রিল উদ্ধার করে। এবিষয়ে উদ্ধারকারী পুলিশ কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম মহিষ চুরি ও উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেন।