সৌদি আরবের আকাশে ইসরাইলগামী উড়োজাহাজ

482
gb

জিবিনিউজ ডেস্ক:: ৭০ বছরের মধ্যে এই প্রথম সৌদি আরবের আকাশসীমা ব্যবহার করে কোনো বাণিজ্যিক উড়োজাহাজ ইসরাইল পৌঁছেছে।
বৃহস্পতিবার ভারতের রাজধানী দিল্লি থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার একটি উড়োজাহাজ ইসরাইলের তেল আবিবের গুরিঅন বিমানবন্দরে পৌঁছায় বলে জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

অবশ্য এয়ার ইন্ডিয়াকে তাদের আকাশসীমা ব্যবহার করে ইসরাইলে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দেয়ার বিষয়ে রিয়াদ কর্তৃপক্ষ এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি।

ইসরাইলকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি সৌদি আরব। এ ছাড়া ইসরাইল থেকে বা ইসরাইলগামী উড়োজাহাজের সৌদি আরবের আকাশসীমা ব্যবহারের ওপর ৭০ বছরের পুরনো একটি নিষেধাজ্ঞা আছে।

ফাইটরাডার মনিটরিং অ্যাপের তথ্যানুযায়ী, এয়ার ইন্ডিয়ার বোয়িং ৭৮৭-৮ জিএমটি ১৬:৪৫ মিনিটে সৌদি আরবের আকাশে প্রবেশ করে এবং প্রায় ৩ ঘণ্টা ধরে ৪০ হাজার ফুট ওপর দিয়ে উড়ে দেশটির আকাশসীমা অতিক্রম করে।
তারপর সেটি জর্ডান এবং পশ্চিমতীর হয়ে ইসরাইলে প্রবেশ করে। যাত্রাপথে মোট সাড়ে সাত ঘণ্টা সময় লাগে।
উড়োজাহাজটি সৌদি আরবে প্রবেশের আগে ওমানের আকাশসীমা অতিক্রম করে। যদিও ওমানও ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেয়নি।
পর্যবেকদের ধারণা, আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বী ইরানকে ঠেকাতে দৃশ্যত বৈরী এ দেশ দু’টি কাছাকাছি আসছে।
ইসরাইলের সামরিক বাহিনীর রেডিওকে দেয়া সাাৎকারে দেশটির পর্যটনমন্ত্রী যারিভ লেভিন বলেন, ‘দুই বছরের প্রগাঢ় সহযোগিতা ও কাজের ফল আজকের এই ঐতিহাসিক দিন।’
ইসরাইলের রাষ্ট্রীয় ক্যারিয়ার ইওয়ান এওয়ান বলছে, রিয়াদের আকাশ ব্যবহার করে এয়ার ইন্ডিয়া দিল্লি থেকে তেল আবিবে দ্রুততম সময়ে পৌঁছানোর যে সুযোগ পেয়েছে তা এ রুটে চলাচলকারী প্রতিদ্বন্দ্বী বিমান সংস্থাগুলোর জন্য ‘অন্যায্য’ হচ্ছে।

ইসরাইলের পর্যটনমন্ত্রী বলছেন, ভারতীয় বিমানের মত অন্য দেশের ক্যারিয়ারগুলোও যেন ইসরাইল যেতে-আসতে সৌদি আকাশসীমা ব্যবহারের সুযোগ পায় সে ব্যাপারে আলোচনা চলছে।
‘তারা আগে বলত, সৌদি আরব কোনো বিমানকে ছাড় দেবে না, এখন তারা (সৌদি আরব) দিচ্ছে; এটা একটা প্রক্রিয়া, শেষ পর্যন্ত আমাদেরটাও (ইওয়ান এওয়ান) যেতে পারবে’, বলেন লেভিন।এয়ার ইন্ডিয়ার পথ অনুসরণ করে সৌদি আকাশসীমা ব্যবহারের সুযোগ নিতে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স ও ফিলিপিন্সের একটি ক্যারিয়ারের সাথে আলোচনা চলছে বলেও জানান তিনি।
‘ইসরাইলে আসতে আকাক্সা ও প্রস্তুতি আছে তাদের; যদিও ঠিক জানি না, তারা ভারতীয় বিমানের মতো অনুমোদন পাবে কি না।’
এ প্রসঙ্গে তাৎণিকভাবে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের মন্তব্য চেয়েও পাওয়া যায়নি, জানিয়েছে রয়টার্স।