টুঙ্গিপাড়ায় কেটে ফেলা হলো প্রধানমন্ত্রীর হাতে লাগানো গাছ

401
gb

হেমন্ত বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ :

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া পর্যটনমোটেল প্রাঙ্গণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে রোপিত একটিগাছ কেটে ফেলা হয়েছে। পর্যটন মোটেলের হোটেল মধুমতিরম্যানেজার ফারুকুজ্জামান গত শুক্রবার গাছটি কাটেন। এ ঘটনায়টুঙ্গিপাড়া ও গোপালগঞ্জের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের মধ্যেক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ইতিমধ্যেই ঢাকায় ক্লোজ করা হয়েছেফারুকুজ্জামানকে।হোটেল মধুমতির পরিবেশক মো. হাবিবুর রহমান জানান, ২০০১ সালের১৩ জুলাই টুঙ্গিপাড়ায় হোটেল মধুমতি উদ্বোধনের দিন প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা সেখানে একটি ক্রিসমাস ট্রি রোপণ করেন। দীর্ঘ ১৭বছরে অন্যান্য গাছের সঙ্গে বেড়ে ওঠে এ গাছটি তার পরিপূর্ণসৌন্দর্য নিয়ে বিরাজ করছিল। মোটেল ক্যাম্পাস পরিস্কারের নামেম্যানেজার ফারুকুজ্জামান ক্যাম্পাসের ১৮টি দেবদারু গাছের সঙ্গেপ্রধানমন্ত্রীর রোপিত গাছটিও কেটে ফেলেন।মধুমতির উপ-ব্যবস্থাপক শেখ মো. জিয়াউল হক বলেন, ্#৩৯;গাছটি কাটতেআমি তাকে নিষেধ করেছিলাম। ঘটনার দিন আমি অফিসিয়াল কাজেবাইরে যাই। এ সুযোগে ম্যানেজার নিজের ক্ষমতার দাপট দেখিয়েগাছটি কেটে ফেলেন। এ বিষয়ে অভিযুক্ত ফারুকুজ্জামান বলেন,গাছটি প্রধানমন্ত্রী রোপণ করেছেন, এটা আমার জানা ছিল না।হোটেলে যোগ দেওয়ার পর গত দ্#ু৩৯;মাসে বিষয়টি কেউ আমাকে
জানায়নি। গাছটি খুব বড় হয়ে এমনভাবে ঝুঁকে পড়েছিল যে, বাইরেথেকে হোটেলের নাম দেখা যাচ্ছিল না। তাই পর্যটকদের সুবিধার কথামাথায় রেখে, বাইরে থেকে যাতে হোটেলের নাম তারা স্পষ্টভাবে দেখতেপারেন, সে জন্যই গাছটি কেটে ফেলার কথা বলি।
পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান খান কবির বলেন, এব্যাপারে পর্যটন করপোরেশন থেকে তদন্ত দল গঠন করে টুঙ্গিপাড়া
পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়াহবে।