Bangla Newspaper

প্রেমিকার সাথে দেখা করতে যাওয়ায় প্রেমিককে হত্যার চেষ্টা

58

 

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলাসদরের নুরপুর গ্রামে প্রেমিকার ডাকে তার সাথে দেখা করতে যাওয়ায়প্রেমিক মেধাবী ছাত্র সোহান মন্ডলকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছেএ ঘটনায় থানায় মামলা না নিয়ে উল্টো তার বিরুদ্ধেই মটর সাইকেলচুরির মামলা নিয়েছে পুলিশ। সোহানের পরিবারের পক্ষ থেকে মঙ্গলবারগাইবান্ধা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে গাইবান্ধাজেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ সংশ্ধিসঢ়;ল্লষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে ঘটনারদ্রুত বিচারের দাবি জানানো হয়।সংবাদ সম্মেলনে সোহানের মা জাহানারা বেগম লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ
করেন, প্রভাবশালী ইউপি সদস্য খায়রুল ইসলামের মেয়ে কেয়ামনিরদীর্ঘদিন থেকে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে সোহানের। সে ঢাকার
মোহাম্মদপুরের সরকারি গ্রাফিক্স আর্টস ইন্সটিটিউটের দ্বিতীয়সেমিস্টারের মেধাবী ছাত্র। সোহান ছুটিতে বাড়ি এলে গত ৭
ফেব্ধসঢ়;রুয়ারি প্রেমিকা কেয়ামনি তাকে মোবাইল ফোনে ডেকে বাড়িনিয়ে যায়। সোহান ও কেয়ামনির বাড়ির পাশের রাস্তায় কথা বলার সময়কেয়ামনির পিতা খায়রুল ইসলাম অকথ্য ভাষায় গালাগালাজ করে। এতেসোহান প্রতিবাদ করলে খায়রুল ইসলাম ও তার লোকজন ধারালো অস্ত্র দিয়েবেদম মারপিট করে তাকে হত্যার চেষ্টা চালায়। তার আর্ত চিৎকারেআশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। পরে স্থানীয় লোকজনসোহানকে উদ্ধার করে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্ল্ধেসঢ়;লক্সে ভর্তি করেদেয়।এ ঘটনায় পলাশবাড়ী থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি।কিন্#৩৯; গত ৯ ফেব্ধসঢ়;রুয়ারি ইউপি সদস্য খায়রুল ইসলাম স্থানীয়
প্রভাবশালীদের যোগসাজসে পুলিশকে ম্যানেজ করে সোহানের বিরুদ্ধেমিথ্যা মটর সাইকেল চুরির মামলা দায়ের করে। এব্যাপারে বাধ্য হয়ে
সোহানের মা জাহানারা বেগম বাদি হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতেমামলা দায়েরের প্রস্#৩৯;তি নেয়। মামলা দায়েরের খবর শুনে খায়রুল ইসলাম নানাধরণের ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। ফলে সোহানের পরিবারচরম নিরাপত্তাহীনতায় বাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সোহানের বাবা মিন্টু মন্ডল, বড় ভাইজাফিরুল ইসলাম মন্ডল, ভাবী সালমা বেগম, নানী লাইলী বেগমসহ শরিফুলইসলাম, আনোয়ারুল ইসলাম, মো. শামীম মিয়া প্রমুখ।

Comments
Loading...