স্বর্ণ কিশোরীর ইচ্ছা শক্তি-বাংলাদেশকে বদলে দেবে: আসাদুজ্জামান নূর

625
gb

জিবিনিউজ ডেস্ক //

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে ‘স্বর্ণ কিশোরীরা। এই কার্যক্রম এগিয়ে নিতে স্বর্ণ-কিশোরী নেটওয়ার্ক ফাউন্ডেশনের পরিচালনা ও উপদেষ্টা পরিষদ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। গতকাল ১৯ ডিসেম্বর’১৭ বিকেলে স্বর্ণ-কিশোরী নেটওয়ার্ক ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ধানমন্ডিস্থ সুলতানা কামাল মহিলা কমপ্লেক্সে আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন বক্তারা।
আলোচনা সভার মূল স্লোগান ছিল ‘ইচ্ছাই শক্তি-কৈশোর পুষ্টি নিশ্চিত করি, কৈশোর-বান্ধব বাংলাদেশ গড়ি’। সভায়-সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি বলেন, স্বর্ণ-কিশোরীরা স্কুল ভিত্তিক ক্লাব গঠন ও পরিচালনা করে একটি ভিন্নমাত্রা যোগ করে চলেছে। এদের ইচ্ছা শক্তি-বাংলাদেশকে বদলে দেবে। তাই কৈশোর-বান্ধব বাংলাদেশ গড়তে হলে স্বর্ণ-কিশোরীদের এগিয়ে নিতে হবে।
স্বর্ণ-কিশোরী নেটওয়ার্ক ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা অমিকন গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মেহেদী হাসান বলেছেন, আমাদের স্বর্ণ-কিশোরীরাই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে। কারণ, স্বর্ণ কিশোরী কার্যক্রম সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করে ‘কৈশোর-বান্ধব’ পরিবেশ সৃষ্টি করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। স্বর্ণ-কিশোরীরা স্কুলভিত্তিক ক্লাব গঠন ও পরিচালনা করে একটি ভিন্নমাত্রা যোগ করে চলেছে।
সেই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে সরকারের বিদ্যমান কাঠামোর মাধ্যমে মাধ্যমিক বিদ্যালয় সমূহে কিশোর-কিশোরীদের নিয়ে ক্লাব গঠন, পিয়ার এডুকেশন, এবং কমিউনিটি মবিলাইজেশনের উদ্যোগ বাস্তবায়ন করে চলেছে। তিনি আরো বলেন যে, অমিকন গ্রুপ গত ৩ যুগ ধরে বাংলাদেশের শিক্ষা বিস্তারের ক্ষেত্রে যে ভূমিকা পালন করে আসছে, স্বর্ণ কিশোরী নেটওয়ার্ক ফাউন্ডেশনের সাথে যুক্ত হতে পেরে তা আরও ব্যাপক হবে বলে আমার বিশ্বাস। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের ৪৯১ টি উপজেলা ৪৫৫০ টি ইউনিয়ন পরিষদের ৫০০০ কিশোরী অংশগ্রহণ করে।
অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী,রাজকীয় নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মি. এইচ.ই. লিওনি কুউয়েলেনের, ইউনিসেফ এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি এডুয়ার্ড বেগবেডার, গ্লোবাল অ্যালাইন্স ফর ইমপ্রুভ্ড নিউট্রেশন এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ডঃ রুদ্রা খন্দকার ও নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি’র ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাজাহান প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের অন্যান্য বক্তারা জানান, এ অনুষ্ঠানের মূল উদ্দেশ্য ছিল-বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া এবং সুবিধা বঞ্চিত কিশোরীদের স্বাস্থ্য সচেতনতা ও বাল্য বিবাহের ভয়াবহতা সম্পর্কে সচেতন করা এবং বাংলাদেশ সরকার ও সর্বস্তরের সহযোগিতায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষে একত্রে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার অঙ্গীকারবদ্ধ হওয়া।
উল্লেখ্য, স্বর্ণ-কিশোরী নেটওয়ার্ক ফাউন্ডেশনের পরিচালনায় রয়েছেন, চেয়ারম্যান এন্ড সিইও ফারজানা ব্রাউনিয়া, নির্বাহী পরিচালক ডা. নিজাম উদ্দীন আহমেদ, চ্যানেই আই এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, উপদেষ্টা পরিষদে রয়েছেন, বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুল্লাহ আবু সাঈদ, অমিকন গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মেহেদী হাসান, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর প্রাণ গোপাল দত্ত, মাইক্রোসফট বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর মিস সোনিয়া কবির বশির প্রমুখ।