সিলেটে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী সফলের আহবান

296
gb

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:‘মিলনের মোহনায় স্মৃতির ক্যাম্পাস’ শ্লোগানকে সামনে রেখে সিলেটে বসবাসরত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘চিটাগাং ইউনিভার্সিটি এক্স স্টুডেন্টস ক্লাব, সিলেট’ ২য় বারের মতো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী ’১৭ এর আয়োজন করছে।

এবছর দুদিনব্যাপী প্রাক্তণ শিক্ষার্থীদের আনন্দঘন মূল উৎসব আগামী শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সড়কের নিকটবর্তী অ্যাডভেঞ্চার ওয়ার্ল্ডে অনুষ্ঠিত হবে।

মিলনমেলায় যোগ দিতে ইতোমধ্যে প্রায় ৬০০ প্রাক্তন শিক্ষার্থী নিবন্ধন করেছেন। নিবন্ধনকারীদের পরিবারের সদস্যসহ অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় ২ হাজার।

এছাড়া স্পট রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমেও পুনর্মিলনী উৎসবে অংশগ্রহণ করা যাবে। পুনর্মিলনী উৎসবকে সামনে রেখে ক্লাবের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারস্থ মোতালেব ভিলায় পুনর্মিলনী উদযাপন পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পুনর্মিলনী উদযাপন পর্ষদের প্রচার উপকমিটির আহবায়ক অধ্যক্ষ ও সাংবাদিক লিয়াকত শাহ্ ফরিদী।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন ক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ, উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক নাজমুল হক, ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও উদযাপন পর্ষদের সদস্য সচিব এটিএম সোয়েব।

এসময় আরোও উপস্থিত ছিলেন আব্দুল হান্নান সেলিম, অধ্যাপক সাব্বির আহমদ, আমিনুল ইসলাম লিটন, সেতাব উদ্দিন খান, অধ্যাপক দেবাশীষ দেব, ইমতিয়াজ আহমদ বুলবুল, বদরুল ইসলাম শোয়েব, হুমায়ূন কবীর, হিমাংশু রঞ্জন দাস, অধ্যাপক আব্দুল জলিল, হারুনুর রশীদ প্রমুখ।

লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়, পুনর্মিলনী উৎসবকে স্বাগত জানিয়ে আগের দিন বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) বিকাল ৩টায় বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। ঐতিহ্যের স্মারক কিনব্রিজ সংলগ্ন আলী আমজদের ঘড়িঘর থেকে শুরু হয়ে কোর্টপয়েন্ট, জিন্দাবাজার হয়ে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হবে শোভাযাত্রাটি। মূল উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অর্থমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল মাল আবদুল মুহিত। অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে উৎসবে যোগ দেবেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ডক্টর ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। সিলেট অঞ্চলের বাইরে থেকে অর্থাৎ ঢাকা, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, নোয়াখালীসহ দেশের বাইরে থেকেও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা-এ উৎসবে মিলিত হবেন।

উৎসবে মূল আয়োজনের দিন শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) ৯ টা থেকে অনুষ্ঠানস্থলে শুরু হবে রিপোর্টিং। জাতীয় সংগীত পরিবেশনসহ শ্বেতকপোত উড্ডয়নের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে পর্দা উঠবে মূল উৎসবের। এরপর অতিথিসহ প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা স্ব-স্ব স্থানে আসনগ্রহণের পর শুরু হবে স্বাগত ভাষণ। পরে পুনর্মিলনী উদযাপন পর্ষদের সদস্য সচিব এটিএম সোয়েব কর্তৃক সদস্য সচিবের প্রতিবেদন প্রদান শেষে থাকবে শুভেচ্ছাকথন পর্ব এবং উদ্বোধকের উদ্বোধনী অভিভাষণ। পরে প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি বক্তব্য রাখবেন। ২য় পর্বে অনুষ্ঠিতত্ব সভায় সভাপতিত্ব করবেন চিটাগাং ইউনিভার্সিটির এক্স স্টুডেন্টস্ ক্লাব সিলেটের সভাপতি  অধ্যাপক ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ ও পুর্ণমিলনী উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক নজমুল হক।

পুনর্মিলনী উৎসবে বেলা ১২ টা ২৫ মিনিট থেকে বেলা ২টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত নামাজ ও মধ্যাহ্নভোজের বিরতিশেষে ৩ টায় আবার শুরু হবে দ্বিতীয় অধিবেশন। এরপর স্মৃতিচারণ পর্বে থাকবে ‘পুরনো সেই দিনের কথা’। বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই সমাপ্তি ঘটবে উৎসবের।