সাবেক সেনা কর্মকর্তার হত্যার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে : জাতীয় মানবাধিকার সমিতি  

8
gb

গত ৩১ জুলাই কক্সবাজারের টেকনাফে দায়িত্বরত পুলিশের গুলিতে সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা রাশেদের মৃত্যুতে ক্ষোভ  ও নিন্দা জানিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, মহাসচিব এডভোকেট সাইফুল ইসলাম সেকুল ও সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন আল আমিন বলেছেন, পুলিশের গুলিতে একজন সাবেক সেনা কর্মকর্তা নিহত হওয়ার ঘটনার বিশ্বাসযোগ্য তদন্তের মাধ্যমে কঠোর জবাবদিহিতা নিশ্চিতের কোনো বিকল্প নেই।

বৃহস্পতিবার (৬ আগষ্ট) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন।

তারা বলেন, বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, গুম, খুন এবং অমানবিক শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অবসান ঘটানোর জন্য সকলকে জনগণের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকতে হবে। সে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বাংলাদেশকে একটি মানবিক রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার কাজে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমাদের যথাযথ ভূমিকা পালন করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, পুলিশের গুলিতে সাবেক সেনা কর্মকর্তা নিহত হওয়ার ঘটনাকে এই সামগ্রিক পরিস্থিতির আলোকেই বিবেচনা করতে হবে। কারণ দেশের সংবিধান যেখানে কোনো নাগরিককেই বিনা বিচারে হত্যার অনুমোদন দেয়না, সেখানে ‘দায়মুক্তির’ অপব্যবহারের বিষয়টিও অবান্তর।