ফাঁকা ঈদগাহ: মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের নামাজ আদায়

মো.আব্দুল কাইয়ুম,মৌলভীবাজার।।

জেলার ঈদগাহ গুলোতে পিনপতন নিরবতা, রেওয়াজ অনুযায়ী প্রতিবছর ঈদকে সামনে রেখে মৌলভীবাজার শহরের প্রধান ঈদগাহসহ জেলার সবগুলো ঈদগাহ রং করাসহ নানা বর্ণিল সাজে সাজানো হতো, থাকতো নান্দনিক আলোক সজ্জ্বাও।

রাস্তার মোরে মোরে রাজনৈতিক ও সামাজিক ব্যক্তিবর্গের ঈদ শুভেচ্ছা সম্বলিত তোরণ কিংবা পেস্টুনে ছেয়ে যেতো রাস্তার অলিগলি। ঈদ জামাতের প্রথম লাইনে ভিআইপিদের দীর্ঘ সারি কিংবা জামাতের পূর্বে মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে দীর্ঘ বক্তব্য। সব হিসেব পাল্টে এসব ফেকাশে হয়ে গেছে সময়ের ব্যবধানে।

বছরের দুটি ঈদ উৎসবের অন্যতম অনুষঙ্গ জামাতে নামাজ আদায়। নতুন জামা-কাপড় পড়ে শিশু-কিশোর, যুবক বুড়োসহ নানা বয়সীরা ঈদের নামাজ পড়তে ঈদগাহে যান। আর নামাজ শেষে ভাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হতে একে অপরের কুশল বিনিময়, করমর্দন, কোলাকুলি (মুসাফাহ-মু’আনাকা) শেষে মা-বাবার কবর জিয়ারত। কিন্তু প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস নামক ভয়ঙ্কর মহামারি পাল্টে দিয়েছে অতীতের সকল রীতিনীতি।

সংক্রমণ রোধে সরকারের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী এবারও ঈদগাহ বা খোলা মাঠে ঈদের জামাত হয়নি। বিগত মাহে রমযান পরবর্তী ঈদুল ফিতরের পর একই নিয়মে ঈদগাহ ছাড়াই জেলার প্রতিটি মসজিদে মসজিদে পালিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ। উদ্বেগ-উৎকন্ঠাকে সাথি করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দলে দলে শহর, গ্রাম আর মহল্লার মসজিদ গুলোতে মুসল্লিরা ভিন্ন আবহে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছেন।

ইসলামীক ফাউন্ডেশ সূত্রে জানা যায়, জেলায় সর্বমোট ৬৪৮টি জামে মসজিদ রয়েছে, যেখানে সরকারের দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদগাহে না গিয়ে প্রতিটি মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের জন্য ইতি মধ্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে,সে অনুযায়ী মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেছেন। তবে গ্রামাঞ্চলের মসজিদ গুলোতে শারীরিক কিংবা সামাজিক দূরত্ব মানতে কিছুটা শীতলতা লক্ষ্য করা গেছে।

ইসলামীক ফাউন্ডেশনের মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ফিল্ড সুপার ভাইজার মো. জুলফিকার আলী বাবুল জানান, শুধুমাত্র জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদুল আজহার ৬টি জামাতের বিষয়ে সময় সূচি চুরান্ত হলেও জেলার মসজিদ গুলোতে ঈদুল আজহার জামাতের সময় সূচির ব্যাপারে স্ব স্ব মসজিদ কমিটিই চুরান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজেদের মত করে নামাজ আদায় করেছেন।

মৌলভীবাজার পৌরসভার সাবেক মেয়র ফয়জুল করিম ময়ূন বলেন, ঈদে মানুষের মধ্যে যে বর্ণিল আনন্দ বিরাজ করতো সেটি এখন আর নেই। আমাদেরকে আগামীর দিনগুলোতে করোনাকে সঙ্গি করে নিয়ে জীবনের গতি প্রবাহ অব্যাহত রেখে চলতে হবে।

এদিকে মৌলভীবাজার শহরের প্রধান ঈদগাহে নামাজের পরিবর্তে শহরের সৈয়দ শাহ মোস্তফা (র.) দরগাহ মসজিদ,জেলা জামে মসজিদ, দেওয়ানি মসজিদ, পশ্চিমবাজার জামে মসজিদ,বায়তুল আমান জামে মসজিদ,সুলতানপুর জামে মসজিদ,কাজিরগাঁও জামে মসজিদসহ পৌর এলাকার সবগুলো মসজিদেই সকাল ৭টা থেকে ৮টার মধ্যেই ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা।

অপরদিকে জেলার ৭ উপজেলার অধিকাংশ মসজিদ গুলোতেও একই সময়ের মধ্যে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন