ইহুদিদের নয় জেরুজালেম মুসলমানদের পূণ্যভূমি

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে বক্তারা

452
gb

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:

আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসাবে স্বীকৃতি দেবার ঘোষণার প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের বিভিন্ন ইসলামী সংগঠন।

শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় বাংলাদেশের বিভিন্ন মসজিদে ইমামরা এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করে বক্তব্য দিয়েছেন।

তাদের সাথে একমত পোষণ করেছেন আগত মুসল্লিরা। বেশ ক’টি ইসলামী দল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে অংশ নেয়।

সবচেয়ে বড় প্রতিবাদ হয়েছে ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদের বাইরে জুম্মার নামাজের পর। পল্টন এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ থেকে বলা হয়, জেরুজালেম ইহুদি কিংবা অন্য কোনো ধর্মের রাজধানী নয়। জেরুজালেম, ইসলামের পূণ্যভূমি, মুসলমানদের রাজধানী। ট্রাম্পের ঘোষণা বিশ্ব মুসলমান মানে না। অবিলম্বে এ ঘোষণা বাতিল করা না হলে বিশ্ব মুসলিমদের সঙ্গে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

বাইতুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেটে আয়োজিত সমাবেশে হেফাজতের ঢাকা মহানগর কমিটির নায়েবে আমীর মাহমুদুল হাসান বলেন, আমেরিকার সাম্রাজ্যবাদের যে নীতি সেটারই বহিঃপ্রকাশ জেরুজালেমকে ইজরায়েলের রাজধানী ঘোষণা। এটা আমরা মানি না।

বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ মানে না। যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট একজন মস্তিষ্কবিকৃত লোক। তার একের পর এক নানা বিতর্কিত ও আগ্রাসনমূলক সিদ্ধান্তে বিশ্বশান্তি মারাত্মক হুমকির মুখে পড়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের ভাবমূর্তিকে বিশ্ববাসীর কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করছে।

হেজফাতের নায়েবে আমির ও ঢাকা মহানগর কমিটির আমির নূর হোসাইন কাসেমি বলেন, এ ঘোষণা বাতিল করা না হলে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। আমরা ঘরে ফিরবো না। আমেরিকা যদি এ ঘোষণা বাতিল করে ক্ষমা না চায় তবে জিহাদ ঘোষণা করা হবে। বুধবার ঢাকার মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচিও ঘোষণা করেন তিনি।

পৃথক সমাবেশে ইসলামী ছাত্রসেনার সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি তাওহীদুল ইসলাম তুহিন বলেন, জেরুজালেম আমাদের প্রথম কিবলা। মুসলমানদের পবিত্র শহর পবিত্র মসজিদুল আকসাকে ঘিরে গড়ে ওঠা জেরুজালেম নগরীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসেডিন্ট অন্যায়ভাবে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করেছে। এ ঘোষণার মধ্য দিয়ে মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে যুদ্ধ লাগিয়ে দিয়েছে। তার সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিশ্ব মুসলিম নেতারা ও জনসাধারণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

বিক্ষোভকারীরা ফিলিস্তিনের ‘কিছু হলে জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’, ‘দুনিয়ার মুসলিম এক হও, লড়াই করো’, ‘বিশ্ব মুসলিম ঐক্য গড়, ফিলিস্তিনি স্বাধীন করো’ প্রভৃতি স্লোগান দেন।

গত বুধবার (৬ ডিসেম্বর) মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেম শহরকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন এবং জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তরের নির্দেশ দিয়েছেন। এর প্রতিবাদে এই বিক্ষোভগুলো করা হয়।