রহস্যময় কিম জং উন আবারও নিখোঁজ!

41
gb
5

জিবিনিউজ 24 ডেস্ক //

কখনো পরমাণু বিতর্ক, কখনো বা একাধিক স্বৈরাচারী সিদ্ধান্ত-ঘুরে ফিরে গত কয়েক বছর ধরে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একজন আলোচিত ব্যক্তিত্ব উত্তর কোরিয়ার শীর্ষনেতা কিম জং উন। তথ্যের অপ্রতুলতার কারণে অনেক ক্ষেত্রে গুজব রটে তাকে নিয়ে।তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন বা মারা গিয়েছিলেন বলে বেশ কিছুদিন আগে গুজব ছড়িয়েছিল। কিন্তু কয়েক দিন না যেতেই সব গুজব উড়িয়ে দিয়ে জনসম্মুখে আসেন তিনি।

প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে লোক চক্ষুর আড়ালে থাকায় তিনি হার্ট অ্যাটাক অথবা করোনায় মারা গেছেন বলে গুজবও ছড়িয়েছিল। ২০ দিন পর ১ মে রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের কাছে সানচিয়নে একটি সার কারখানার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির হন কিম।

ওই ঘটনার ১ মাস না যেতেই আবারও নিখোঁজ হয়েছেন এ রহস্যময় নেতা। ১ মের পরে গত তিন সপ্তাহ ধরে তাকে আর দেখা যায়নি বলে দেশটির গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ করা হয়েছে।

শুক্রবার (২২ মে) দেশটির গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ার নেতা তিন সপ্তাহ ধরে জনসমক্ষে উপস্থিত হননি। তারা এটাকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছেন। সিউল কর্তৃপক্ষ পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে।

এর আগে জানুয়ারিতেও কিমকে ২১ দিনের জন্য জনসমক্ষে দেখা যায়নি। বিষয়টি উল্লেখ করে দক্ষিণ কোরীয় সরকারের একজন মুখপাত্র ইয়ো সাং-কি অবশ্য স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন যে, কিম বারবারই এমন করে থাকেন। ২০১৪ সালে তিনি ৪০ দিনের জন্য নিখোঁজ হয়েছিলেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর দাবি, এর জেরেই হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার এবং তারপর থেকেই গুরুতর অসুস্থ ছিলেন কিম জং উন। যদিও কিমের অস্ত্রোপচার সম্পর্কিত দাবি সত্যি না মিথ্যা, তা নিয়ে কোনো বিবৃতি আসেনি পিয়ংইয়ং থেকে। তবে মার্কিন ওষুধ সংস্থা ‘জন হপকিন্স’-এর তরফে দাবি, কিমের যে ধরনের স্থূলতা রয়েছে, তাতে হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার স্বাভাবিক।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন