রংপুর সিটি নির্বাচনে প্রতীক পেয়েই মাঠে প্রার্থীরা

818
gb

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীরা প্রতীক পাওয়ার পরই আজ সোমবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী গতকাল রবিবার প্রতিদ্বন্দ্বি ২৮৩ জন প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়।

এরমধ্যে রয়েছে মেয়র প্রার্থী সাত জন, ৩৩টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং ১১টি সংরক্ষিত নারী পদে ৬৫ জন। ভোট গ্রহণ করা হবে ২১ ডিসেম্বর।

নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সরফুদ্দিন আহাম্মেদ ঝন্টুকে নৌকা, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী কাওছার জামান বাবলাকে ধানের শীষ ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে লাঙ্গল প্রতীক দেওয়া হয়। এলডিপির প্রার্থী সেলিম আখতার আম প্রতীক, বাসদের আব্দুল কুদ্দুস মই প্রতীক, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের প্রার্থী এটিএম গোলাম মোস্তফা হাতপাখা প্রতীক পেয়েছেন। এছাড়া স্বতন্ত্রপ্রার্থী (জাতীয় পার্টির বিদ্রোহী) জাপা চেয়ারম্যান এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ পেয়েছেন হাতি প্রতীক।

এদিকে প্রার্থীরা তাদের সমর্থকদের নিয়ে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে আজ সকাল থেকে ভিড় করতে থাকেন। মেয়র পদে দলীয় প্রার্থীরা ছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর তাঁদের সমর্থকরা আনন্দ-উল্লাস করে।

৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী আতাউর রহমান বলেন, আমি আমার কাঙ্খিত প্রতীক ‘ঘুড়ি’ পেয়েছি। তাই সঙ্গে আসা সমর্থকরা আনন্দে মেতে উঠেছে।

৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী মোকারম হোসেন জানান, বিগত নির্বাচনেও তিনি প্রার্থী ছিলেন। প্রতীক ছিল করাত। এবারও তিনি করাত প্রতীক পাওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন।

কর্তৃপক্ষ জানায়, ১৮৬৯ সালে ২৩ বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ে রংপুর পৌরসভার যাত্রা শুরু হয়। পরে তা ৫৪ বর্গকিলোমিটারে উন্নীত হয়। ২০১২ সালের ২৮ জুন ২০৩ বর্গকিলোমিটার আয়তনের ৩৩টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত হয় রংপুর সিটি করপোরেশন। বর্তমানে মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন। ২১ ডিসেম্বর ৩৩টি ওয়ার্ডে ১৯৩টি ভোটকেন্দ্রের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।