গোপালগঞ্জের সরকারি জমি দখল ও গাছ কাটলেন কলেজের অধ্যক্ষ

21
gb

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপার নবপল্লী মধুমতি বিলরুট ক্যানেল নদীর পাড়ে মিথ্যা বৃদ্ধাআশ্রমের নাম দিয়ে জমি দখল ও বনবিভাগের গাছ কাটার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সাতপাড় সরকারী নজরুল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষ নির্বান চন্দ্র মন্ডল এই জমি দখল ও গাছ কাটে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মধুমতি বিলরুট ক্যানেল নদীর পাশে থাকা জমি দখল করে এবং সেখানে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নাম দিয়ে একটি মিথ্যা ভিত্তিস্থাপন করে সাতপাড় সরকারী নজরুল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষ নির্বান চন্দ্র মন্ডল। ওই নদীর পাড়ে থাকা বনবিভাগের গাছও কাটেন তিনি। তখন বনবিভাগের কর্মকর্তা পরিচয়ে ওই এলাকার বাদল বিশ্বাস এসে বাধা দিয়ে অধ্যাক্ষর সাথে ওই গাছ ভাগভাগী করে নেয় বাদল বিশ্বাস ও বনবিভাগ সমিতির সদস্য বাদল চন্দ্র সমাদ্দার। বদাল চন্দ্র সমাদ্দার বলেন, এই গাছের কাটেন সরকারী নজরুল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষ নির্বান চন্দ্র মন্ডল। তখন বনবিভাগের কর্মকর্তা বাদল বিশ্বাস সহ আমি এসে বাধা দেই। এখন এই গাছের নিচের অংশ অধ্যাক্ষকে দিতে হবে এবং বাকি অংশ আমি নিবো। নৃপেন মন্ডল গাছ কাটার কথা স্বীকার করে বলেন, আমি এখানে একটি বৃদ্ধাআশ্রম করবো তাই রান্না ঘর করার জন্য ওই গাছ কাটা হয়। সাতপাড় ইউপি ভুমি কর্মকর্তা শ্যামল কুমার বালা বলেন, আমি দেখেছি ওই জায়গায় একটি গাছ কাটা এবং একটি মিথ্যা ও বানোয়াট বৃদ্ধাআশ্রমের ভিত্তি স্থাপন ইউএনও স্যারের নামে । আমি ইউএনও স্যারের সাথে কথা বলেছি তিনি কোন বৃদ্ধাআশ্রমের ভিত্তিস্থাপন করে নাই এবং ভেঙ্গে ফেলতে বলেছেন।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন