কলকাতায় আনছারুল্লাহ টিমের দুই ‘জঙ্গি’ গ্রেপ্তার

297
gb

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:

কলকাতার চিত্পুর স্টেশন থেকে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্কফোর্স বা এসটিএফ দুই বাংলাদেশি যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। এসটিএফের ডেপুটি কমিশনার মুরলিধরন শর্মা দাবি করেছেন, ধৃত দুজন বাংলাদেশের আনছারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য এবং তাদের কাছ থেকে প্রচুর ‘জঙ্গি তত্পরতা’র নথিপত্র জব্দ হয়েছে।

ধৃতরা একজন খুলনার পাইকগাছার বাসিন্দা রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ এবং অন্যজন সুনামগঞ্জের সামসাদ মিয়া। এ ছাড়া গোয়েন্দারা আরো দুজন ভারতীয় অস্ত্র ব্যবসায়ীকেও গ্রেপ্তার করেছে। তদের নাম মনতোষ দে ও তুষার বিশ্বাস। তারা দুজন পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশপরগনা জেলার বসিরহাটের বাসিন্দা। গোয়েন্দারা তাদের কাছ থেকে একটি সেভেন এমএম পিস্তল এবং একটা শুটারগান উদ্ধার করেছে।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলকাতা পুলিশের সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উদ্ধার হওয়া বই, কম্পিউটারের বিভিন্ন  অংশ, অস্ত্র এবং প্রচুর লিফটলেট প্রদর্শন করে কলকাতা পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুলিশের ডেপুটি কমিশনার মুরলিধরন শর্মা।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ধৃতদের সম্পর্কে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার তরফে আগেই তাঁরা বিভিন্ন তথ্য পেয়েছিলেন। সেই তথ্য পেয়ে হন্যে হয়ে খুঁজছিলেন রিয়াজুল ও সামসাদকে।

সম্প্রতি তাঁদের নিজস্ব সোর্স খবর নিশ্চিত করে যে কলকাতা স্টেশনে অস্ত্র ব্যবসায়ীর সঙ্গে দেখা করে অস্ত্র কিনতে যাচ্ছে ওই দুই বাংলাদেশি আনছারুল্লাহর সদস্য। সেই মতো ফাঁদ পাতেন গোয়েন্দারা।

গতকাল দুপুর আড়াইটা নাগাদ কলকাতার চিত্পুর রেলস্টেশনের কাছে মনতোষ ও তুষারের কাছ থেকে অসে্ত্রর স্যাম্পল দেখার সময় হাতেনাতে ধরে ফেলেন গোয়েন্দারা।

কলকাতা পুলিশের ওই কর্মকর্তা আরো জানিয়েছেন, গ্রেপ্তারের পর তাদের ডেরায় তল্লাশি চালিয়ে বহু আল-কায়েদার বই জব্দ করা হয়। কী করে বিস্ফোরক তৈরি করা হয়, কিংবা কী করে রেকি (যে জায়গায় বিস্ফোরণ ঘটানো হবে সেই জায়গার তথ্য সংগ্রহ) করা হয় এ সম্পর্কিত বই রয়েছে জব্দ তালিকায়।