গোবিন্দগঞ্জে স্বামীর স্বীকৃতির দাবীতে ৪ দিন থেকে অবস্থান শিক্ষিকার

362
gb

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি ||

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে স্বামীর স্বীকৃতির দাবীতে এক শিক্ষিকার ৪ দিন থেকে অবস্থান করছেন।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে জাহানারা বেগম প্রতারক উজ্জল মিয়ার বাড়ীতে অবস্থান করায় তাকে মানষিক ও শারিরীক ভাবে নির্যাতন করছে উজ্জল মিয়ার পরিবারের লোকজন।

জানা যায়,কামারদহ ইউনিয়নের উত্তর ঘোড়ামারা গ্রামের আইজলের কন্যা ফাঁসিতলা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের শিক্ষিকা জাহানারা বেগম (২৭) স্বামীর স্বীকৃতির দাবীতে নারীলোভি লম্পট উজ্জল মিয়া (৩৩) এর বাড়ীতে অবস্থান করছে।

উজ্জল মিয়া একই ইউনিয়নের ফাঁসিতলা বন্দরের সাইকেল মেকার তছলিম মিয়ার পুত্র।

স্থানীয়রা জানায়, উজ্জলের বাড়ীতে শিক্ষিকা জাহানারা বেগম স্বামীর স্বীকৃতির দাবী আদায়ে ওই বাড়ীর একটি নোংরা ঝুপড়ি ঘরের ছাপড়ার মধ্যে অবস্থান করছে। প্রতারক উজ্জল মিয়া সম্পর্কে ওই শিক্ষিকার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, পিতার কোন পুত্র সন্তান না থাকায় লম্পট উজ্জল ভাই সম্পর্ক স্থাপন করে তাদের বাড়ীতে সবাই যাতায়াত করতো। সেই সুবাদে লম্পট নারী পিপাসু প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। এক পর্যায়ে তার পরিবারের সম্মতিতে ৯ মাস আগে ২ লাখ টাকা দেনমোহর ধায্য করে তাদের বিবাহ হয়। এরি ফাঁকে উজ্জল মিয়ার পরিবার জাহানারার কাছ থেকে কৌশলে ৯০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় এবং আরো ২ লাখ টাকা দাবী করে। সেই দাবীকৃত টাকা দিতে না পারায় উজ্জল মিয়া ও তার পরিবার স্ত্রীর স্বীকৃতি দিবে না বলে জাহানারার সাথে সকল প্রকার যোগাযোগ বিছিন্ন করেছে।

এ ব্যাপারে উজ্জাল জানান তার সঙে আমার কোন সম্পর্ক নেই, সে আমার দূবর্লতার সুযোগ নিয়ে কিছু টাকা খশাইতে চাইছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন