ভারত পরমাণু যুদ্ধ বাধালে পাকিস্তানও প্রস্তুত : ইমরান খান

129
gb

জিবি নিউজ ডেস্ক।।

ভারতের পরমাণু অস্ত্রের নিরাপত্তা নিয়ে বিশ্বকে সতর্ক করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

তিনি ভারতের পরমাণু অস্ত্রভান্ডার অন্য দেশগুলোর জন্য আদৌ নিরাপদ কি না তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বিষয়টি আমলে নেয়ার জন্যও বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

পাকিস্তানের ‘দ্য ডন’ পত্রিকা জানিয়েছে, রোববার একাধিক টুইটে ইমরান খান বলেছেন, ‘ভারতের পরমাণু অস্ত্রভান্ডার থেকে অন্যান্য দেশ কতটা নিরাপদ তা এবার গোটা বিশ্বের গুরুত্ব দিয়ে ভাবা উচিত।’

তিনি বলেন, ‘এ অস্ত্রভান্ডারের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে ফ্যাসিবাদী ও হিন্দু প্রভুত্ববাদী মোদী সরকারের হাতে…যার প্রভাব শুধু এ অঞ্চলেই নয়, গোটা বিশ্বেই পড়বে।’

ভারত যুদ্ধ পরিস্থিতিতে শত্রুপক্ষের বিরুদ্ধে ‘প্রথমে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করবে না’ বলে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকলেও আগামী দিনে এ নীতি বদলাতে পারে- এমন ইঙ্গিত দেওয়ার পর বিশ্বকে এ নিয়ে সতর্ক হতে বললেন ইমরান খান।

গত শুক্রবার ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ রাজস্থানের পোখরানে এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, ‘ভারত পরমাণু অস্ত্র প্রথম ব্যবহার না করার নীতি এখনো মেনে চলছে। তবে ভবিষ্যতে কী হবে, তা নির্ভর করছে পরিস্থিতির ওপর।’

ইমরান খানের ধারণা, কাশ্মীর থেকে বিশ্বের দৃষ্টি অন্যদিকে ফেরাতেই ভারত পরমাণু যুদ্ধ বাধিয়ে দিতে পারে। তিনি আরও বলেন, এর প্রভাব কেবল উপমহাদেশেই পড়বে না বরং গোটা বিশ্বে পড়বে।

এর আগে গত ১৪ আগস্ট পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের রাজধানী মোজাফফরবাদে এক ভাষণে ভারত এমন উদ্দেশ্য নিয়ে আজাদ কাশ্মীরে হামলার পরিকল্পনা করছে বলে জানিয়েছিলেন ইমরান।

পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে মোজাফফরবাদে রাজ্য পার্লামেন্টে বিশেষ অধিবেশনের ওই ভাষণে তিনি বলেন, `আমরা জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির (এনএসসি) দু’টো বৈঠক করেছি। আমাদের কাছে তথ্য আছে। ভারত যে আজাদ কাশ্মীরে আক্রমণের পরিকল্পনা করেছে সে ব্যাপারে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী পুরোপুরি ওয়াকিবহাল।‘

প্রসঙ্গত, গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্ত্বশাসনের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে ভারত সরকার। পাশাপাশি রাজ্যটিকে ভেঙে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার ঘোষণা দেয়।

এর প্রতিবাদে পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করতে শুরু করলে দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনার আবহ সৃষ্টি হয়।

এর মধ্যে ভারত পরমাণু অস্ত্র প্রয়োগ নীতি বদলের আভাস দেওয়ার পর শনিবারই ইসলামাবাদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ভারতের দিক থেকে যে কোনও পরমাণু হামলার জন্য ‘পুরোপুরি প্রস্তুত’ রয়েছে পাকিস্তান।

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More