শিক্ষা ও পরিবেশে বিশেষ অবদানে শেরে বাংলা পদকে ভূষিত হলেন এইচ এম জসিম উদ্দীন

140

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :
বরিশালের হেমায়েত উদ্দিন রোড (গির্জা মহল্লা) ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছমত আলী (এ.কে) ইনস্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষক ও পরিবেশবাদী ব্যক্তিত্ব, স্কুল কমিটির সাধারণ সম্পাদক এইচ এম জসিম উদ্দীন আজ ২৬ জুলাই ২০১৯ শুক্রবার বিকালে ঢাকার বিজয় নগরস্থ থ্রি ষ্টার হোটেল অর্নেট মিলনায়তনে শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও গুনীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শিক্ষা ও পরিবেশে বিশেষ অবদান রাখার জন্য শেরে বাংলা পদকে ভূষিত হলেন।

শেরে বাংলার দৌহিদ্র সাবেক তথ্য সচিব, সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিচারপতি ফয়সল মাহমুদ ফয়জী, প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন এডভোকেট আদিবা আনজুম মিতা এমপি, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ মো. হারুন-অর-রশিদ, বাংলাদেশ পিপলস্ পার্টি চেয়ারম্যান বাবুল সরদার চাখারী, মোশাররফ হোসেন খান চৌধুরী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মোশাররফ হোসেন খান চৌধুরী, এশিয়া স্বপ্নপুরী ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মোশারফ হোসেন, শিক্ষানুরাগী এইচ এম জসিমউদ্দীন, ইতালি বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রতিনিধি মো. রিয়াজ, স্বাগত বক্তব্য রাখবেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা এবং অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের মহাসচিব আর কে রিপন।

এইচ এম জসিমউদ্দীন তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, শেরে বাংলা যে জেলায় জন্মগ্রহন করেছেন আমিও সেই জেলায় জন্মগ্রহন করে নিজেকে গর্বিত মনে করছি। শিক্ষকতাকে জীবনের পাথেয় হিসাবে বেছে নিয়ে নতুন প্রজন্মকে সুশিক্ষিত ও মেধাবী করার অনুপ্রেরনা পেয়েছি বাংলার বাঘের কাছ থেকে। শিশুকাল থেকেই শেরে বাংলার অনুরাগী ছিলাম। আজ তারই দৌহিত্রের কাছ থেকে পদক নিয়ে আমি অভিভূত। ভবিষ্যতে শেরে বাংলাকে নিয়ে কাজ করার আগ্রহ রয়েছে।

তিনি বলেন, আমি যে স্কুলের প্রধান শিক্ষক সেখানেও শেরে বাংলার পা পড়েছিল। এই ঐতিহ্যবাহি স্কুল থেকে আবদুল গফ্ফার চৌধুরী সহ অনেক খ্যাতিমান ব্যাক্তিরা শিক্ষা গ্রহন করেছেন। বরিশালের প্রাণকেন্দ্র গির্জা মহল্লায় একে স্কুল প্রতিষ্ঠিত। ভবিষ্যতে এখানে শেরে বাংলার জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকী প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে পালন করা হবে।