পাকিস্তানে সমালোচিত সরফরাজের প্রশংসায় ভারত

103
gb

বিশ্বকাপ শুরুর আগে ইংল্যান্ডের বাকিংহ্যাম প্যালেসে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন ১০ দলের অধিনায়ক।

গত বুধবার স্থানীয় সময় বিকাল ৩টায় রানির বাকিংহ্যাম প্যালেসে ১০ অধিনায়কের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ।

সেদিন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাসহ বিশ্বকাপে অংশ নেয়া ৯ দলের অধিনায়ক স্যুট-বুটে হাজির হয়েছিলেন বাকিংহ্যাম প্যালেসে।

কিন্তু একটু ভিন্নভাবেই সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন পাকিস্তান দলের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

যেখানে সব দলের অধিনায়কদের স্যুট-বুটে হাজির হয়ে বাকিংহ্যাম প্যালেসে রানি এলিজাবেথের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন সেখানে সরফরাজকে দেখা গেল একদম দেশি পোশাকে।

সরফরাজ সেখানে গিয়েছিলেন সাদা সালোয়ার কামিজ ও এর ওপরে সবুজ ব্লেজার পরে।

সরফরাজের এমন পোশাক নিয়ে পাকিস্তানের সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় বয়ে গেছে ইতিমধ্যে।

রাজপ্রাসাদে এলিজাবেথের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছেন সে বিষয়টি মাথায় রাখা উচিত ছিল সরফরাজের। এমন মত দিয়েছেন কেউ কেউ।

কেউ কেউ সমালোচনা করে বলেছেন, এমন পোশাক পরায় বাকি ৯ অধিনায়ক থেকে আলাদা হয়ে পড়েছেন তিনি। তাকে অধিনায়কই মনে হচ্ছিল না।

একটু বেশি রকম কটাক্ষ করেছেন পাকিস্তানের লেখক তারেক ফতেহ।

তিনি তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে লেখেন, ব্লেজারের সঙ্গে পাজামা! অদ্ভুত। আমি অবাক হচ্ছি যে, পাকিস্তান অধিনায়ক লুঙ্গি-গেঞ্জি-টুপি পরে যাননি।

কিন্তু এতো সমালোচনা ও নেতিবাচক মন্তব্যের মাঝেও সরফরাজ আহমেদের এমন পোশাক বিষয়ে তার পাশে এসে দাঁড়িয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট ভক্তরা।

তাদের অনেকে বলছেন, নিজেদের সংস্কৃতিকে বিদেশের মাটিতে ধারণ করেছেন তিনি। এর জন্য পাক অধিনায়ককে স্যালুট জানিয়েছেন তারা।

এটা সরফরাজের সাহসিকতার পরিচয় বলেও মন্তব্য করেছেন বেশ কয়েকজন ভারতীয়।

সরফরাজের প্রশংসায় এক ভারতীয় ক্রিকেট ভক্ত লিখেছেন, ‘সরফরাজ দারুণ কাজ করেছে। আমি হলেও তাই করতাম। দক্ষিণ ভারতীয় হিসাবে আমি আমার স্থানীয় পোশাক পরে সেখানে যেতাম।’

প্রসঙ্গত গত বুধবার বাকিংহ্যাম প্যালেসের সামনে বিখ্যাত দ্য মলে হয় জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। মনোমুগ্ধকর আয়োজনের সাক্ষী হন চার হাজার দর্শক।

এই অনুষ্ঠান পর্বের আগে রানি এলিজাবেথের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয় আসরে অংশ নেয় ১০ দলের অধিনায়কদের।

ওই সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানে এলিজাবেথ ছাড়াও ছিলেন সদ্য বাবা হওয়া ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি এবং রাজপরিবারের আরও অনেক সদস্য।

এ সময় রাজপ্রাসাদে এলিজাবেথের সঙ্গে দেখা করে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন অধিনায়করা। পরে মহারানির সঙ্গে ফটোসেশনে অংশ নেন তারা।

অধিনায়কদের সঙ্গে কুশলবিনিময় করেন প্রিন্স হ্যারি।

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More