অটোয়ায় ঘৃনাত্মক আক্রমনের শিকার বাংলাদেশী সুলতানা চৌধুরী: বাংলাদেশ কানাডা হেরিটেজ সোসাইটির প্রতিবাদ ও নিন্দা

308

মুহাম্মদ আলী (এডমন্টন, কানাডা) থেকে ১০  ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (এডমন্টন) : কানাডার  অটোয়ায় বাংলাদেশ বংশোদ্ভুত সুলতানা চৌধুরী (৫০) প্রকাশ্য  দিবালোকে রাইডাউ  শপিং মলের প্রস্থানস্থলে (বিকেল ৩:০৭ মিনিটে ) এক ঘৃনাত্মক আক্রমনে মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন।

আজ  রোববার দুপুরে এডমন্টন সিটির নর্থগেইট   সেন্টারে বাংলাদেশ কানাডা হেরিটেজ  সোসাইটি অব  এডমন্টন এর এক আলোচনা ও প্রতিবাদ  সভা   অনুষ্ঠিত হয়. এতে সভাপতিত্ব করেন সোসাইটির সভাপতি ম. লস্কর,

প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কানাডা ইউনিট কমান্ডের অন্যতম নির্বাহী ও ডাইভার্স এডমন্টন এর সম্পাদক দেলোয়ার জাহিদ.

অটোয়ায় ঘৃনাত্মক আক্রমনের এ ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে আলোচনায় অংশ নেন সহসভাপতি -আহসান উল্লাহ, মোহাম্মদ আলী, সাধারন সম্পাদক,  সাইফুর হাসান-কোষাধ্যক্ষ , জহিরুল ইসলাম শাহীন  ও তরুন কন্ঠশিল্পী চামেলী লস্কর এবং সভার সভাপতি . বক্তাগণ দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এ ব্যক্তিকে সহায়তা ও সহানুভুতির কথা ব্যক্ত করে কানাডাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসকে কার্যকর ভুমিকা নেয়ার আহ্বান জানান।

দেলোয়ার জাহিদ. নারীর উপর এ ঘৃনাত্মক ও নগ্ন সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাকে কাপুরুষচিত হিসেবে অভিহিত করে এর বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানান এবং অবিলম্বে ঘটনাগুলির আশু তদন্ত ও এর বিরক্তিকর বৃদ্ধির প্রবণতা রোধে করার প্রতি জোরারোপ করেন এবং প্রদেশগুলোতে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সাংগঠনিক প্রয়াস নেয়ার ও আহ্বান জানান।

জানা গেছে আনুমানিক বিকেল ৩:০৭ মিনিটে সুলতানা চৌধুরী অটোয়াস্থ রাইডাউ শপিং মলের প্রস্থানস্থলে বাইরে যাওয়ার পথের  ঠিক সন্নিকটে একজন  আক্রমনাত্মক ব্যক্তি  প্রচন্ড ধাক্কা দিয়ে ফেলে দৌড়ে পালিয়ে যায় । শপিং মলের  নিরাপত্তা কর্মকর্তা জায়েদ পুলিশকে জানান প্রায় ৪৫ বছর বয়সী এ সাদা পুরুষলোক, পরিষ্কার শেভ, ওয়েভি এবং ব্ল্যাক চুল, শীতকালীন বুট পরিহিত ছিল।

মিসেস সুলতানাকে  আক্রমণকারী দূর থেকে অনুসরণ করে কাছাকাছি এসে পূর্ণ শক্তির সাথে তার কনুই দিয়ে প্রচন্ড ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। এ আক্রমণকারী মিসেস সুলতানার কাছে আসার সময় গজরাচ্ছিল। মিসেস সুলতানার মাথায় হিজাব পরিধানের কারনে এ আক্রমন সংগঠিত হয়েছে বলে পরিবার পরিজন মনে করছেন।  সুলতানার বাম হাতের একাধিকস্থানে  হাড় ভেঙ্গে গেছে এবং জেনারেল হাসপাতালের  জরুরী বিভাগে তাকে হাত প্লাস্টার করা হয়েছে।

ঘটনার পর পুলিশ তৎক্ষনিক তদন্ত শুরু করেছে এখনো কেউ গ্রেফতার হয়নি।

মন্তব্য
Loading...