মানবিকতায় ওসি আমিনুলের আবারও অনন্য দৃষ্টান্ত; সড়ক দুর্ঘটনায় আহত স্কুল ছাত্রের চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান

97
gb

মোঃ আব্দুল আজিজ, পাইকগাছা, খুলনা ||

পুলিশ (চড়ষরপব) যার ব্যবধানিক অর্থ চ-চড়ষরঃব-বিনয়ী, ঙ-ঙনবফরবহঃ-অনুগত, খ-খড়ুধষ-বিশ্বস্ত, ও-ওহঃবষষরমবহঃ-বুদ্ধিমান, ঈ-ঈড়ঁৎধমবড়ঁং-সাহসী, ঊ-ঊভভরপরবহঃ-দক্ষ। ইংরেজি ৬টি অক্ষর দিয়ে তৈরী পুলিশ শব্দের ব্যবধানিক অর্থ এত সুন্দর হওয়া সত্তে¡ও আমাদের দেশের পুলিশকে নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ভিন্ন ভিন্ন ধারণা রয়েছে। তবে বেশিরভাগ মানুষ পুলিশকে শাসক হিসাবে বেশি বিবেচনা করে থাকে। যদিও পুলিশ দেশ ও মানুষের কল্যাণে সব সময় নিয়জিত থাকে। পুলিশের অনেক ইতিবাচক কর্মকান্ড থাকলেও কর্মক্ষেত্রে দায়িত্ব পালনকালে কিছু কিছু পুলিশ কর্মকর্তার আচার-আচারণ ও ব্যবহারের কারণে বেশিরভাগ সাধারণ মানুষের মধ্যে পুলিশ সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা সৃষ্টি হয়। কর্মরত পুলিশ যদি প্রতিটি শব্দের অর্থ বিবেচনা করে তারা তাদের দায়িত্ব পালন করতো তাহলে দেশের প্রতিটি মানুষের কাছে উন্নত বিশ্বের ন্যায় আমাদের দেশের পুলিশ হতো সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান। এক্ষেত্রে ব্যতিক্রমী এক পুলিশ কর্মকর্তা ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। যিনি বর্তমানে পাইকগাছা থানায় কর্মরত রয়েছেন। ওসি আমিনুল ভিন্ন ভিন্ন রূপে মানুষের কাছে পরিচিত। তিনি বিনয়ী, অনুগত, বিশ্বস্ত, বুদ্ধিমান, সাহসী ও দক্ষ, পুলিশ শব্দের প্রতিটি অর্থের সাথে যেন নিজেকে মানিয়ে নিয়ে দায়িত্ব পালন করে চলেছেন। তিনি পুলিশ বিভাগ ও রাষ্ট্রের কাছে যেমন অনুগত, সাহসী ও দক্ষ তেমনি সাধারণ মানুষের কাছে বিশ্বস্ত ও মানবিক। অনেকেই তাকে কবি সাহিত্যিক হিসাবেও বলে থাকে। এমন কোন মানবিক গুণাবলি নেই যা আমিনুল ইসলামের মধ্যে নাই। তিনি এলাকার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে যেমন দক্ষ ও সাহসীকতার পরিচয় দেন তেমনি দ্রুততার সহিত ছুটে যান অসহায় মানুষের পাশে। গত বুধবার সকালে পাইকগাছা উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন প্রাণিসম্পদ অফিসের সামনে ঈগল পরিবহনের ধাক্কায় ভিলেজ পাইকগাছা গ্রামের দিনমজুর মুনছুর আলী সরদারের ছেলে ও পাইকগাছা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী সাঈদ মুনতাসির সাব্বির নামে এক স্কুল ছাত্র গুরুতর আহত হয়। সে বর্তমানে মুমুর্ষ্য অবস্থায় খুলনার একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউ’তে চিকিৎসাধীন রয়েছে। চিকিৎসাধীন এ স্কুল ছাত্রের চিকিৎসার জন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। যা তার দরিদ্র পিতার পক্ষে যোগাড় করা সম্ভব নয়। বিষয়টি উপলব্ধি করে চিকিৎসার সাহার্য্যাের্থে তার পাশে এসে দাড়িয়েছেন ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। তিনি বৃহস্পতিবার সকালে নিজ কার্যালয়ে ডেকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন সেখের হাতে নগদ ১৫ হাজার টাকা তুলে দেন সাব্বিরের চিকিৎসার জন্য। এ সময় তিনি বলেন, কোন করুণা নয়, বিপদের সময় অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানো প্রত্যেকটি মানুষের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য। সেই দায়বদ্ধতা থেকে আমি তার চিকিৎসার জন্য পাশে থাকার চেষ্টা করেছি মাত্র। তিনি বলেন, সমাজে অনেক বিত্তবান মানুষ রয়েছে। সবাই যদি সাব্বিরের চিকিৎসার সাহায্যে এগিয়ে আসে তাহলে সে সুস্থ হয়ে উঠবে এবং একদিন সে মানুষের মত মানুষ হয়ে দেশ ও মানুষের কল্যাণে ভূমিকা রাখবে। যারা তার জন্য সহায়তা করতে ইচ্ছুক তাদেরকে ইউএনও জুলিয়া সুকায়না, ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ও প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন সেখের সাথে যোগাযোগ করার কথা বলা হয়। উলে­খ্য, ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব এরআগে প্রভাবশালীদের কাছ থেকে ঋষি স¤প্রদায়ের এক অসহায় বিধবার সম্পত্তি উদ্ধার, অভাবের তাড়নায় বিক্রি করা নবজাতককে তার মায়ের কোলে ফেরত, বৃক্ষমানব আবুল বাজনদার সহ অবরুদ্ধ কয়েকটি পরিবারের যাতায়াতের পথের সু-ব্যবস্থা, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বৃদ্ধ ব্যক্তিকে রক্তদান সহ অসংখ্য মানবিক কাজ করে সাধারণ মানুষের কাছে মানবিক ওসি হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছেন। দেশের প্রতিটি পুলিশ কর্মকর্তা ওসি আমিনুলের মত দক্ষ ও মানবিকতার সহিত দায়িত্ব পালন করুক এমন প্রত্যাশা সকলের।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More